সরষের তেল তৈরির ব্যবসা করুন আপনার এলাকায় | Mustard oil making business is now 50 thousand rupees, great idea

এক বছরের বাচ্চা থেকে ৮০ বছরের বয়স্ক মানুষ পর্যন্ত প্রত্যেকের খাবার তালিকায় সরষের তেলের ব্যবহার সর্বদা রয়েছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। তাই আপনি যদি আপনার এলাকায় একটি ছোট মেশিন কিনে সরষের তেল তৈরির ব্যবসা (Mustard oil making business) শুরু করেন তাহলে এই ব্যবসা থেকে ভালো টাকা উপার্জন করতে পারবেন। বর্তমানে যতগুলি সরষের তেল তৈরির কোম্পানি রয়েছে তারা সবাই প্রতিদিন কয়েক লক্ষ টাকা আয় করছে এই ব্যবসা থেকে। আপনি একটি ছোট তেল তৈরীর মেশিন কিনে সরষের তেল তৈরির ব্যবসা করতে পারেন। এই ব্যবসা করার জন্য যাবতীয় তথ্য নিয়ে নিয়ে রচিত আজকের এই পোস্ট। চলুন দেখে নেওয়া যাক কি পদ্ধতিতে ব্যবসা করলে আপনি এই ব্যবসায় সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

Table of Contents

সরষের তেল তৈরির ব্যবসা কিভাবে শুরু করা যায়? (How to start mustard oil making business?)

সরষের তেল তৈরির ব্যবসা (Mustard oil making business) শুরু করার আগে আপনাকে একটু মার্কেট রিসার্চ করে দেখে নিতে হবে কাঁচামাল কোথা থেকে কিনবেন তৈরি হওয়া সরষের তেল কি পদ্ধতিতে বিক্রি করবেন এবং আপনার কাস্টমার সংখ্যা কতটা রয়েছে আপনার এলাকায়। মার্কেট রিসার্চ করে আপনি বুঝতে পারবেন এই ব্যবসার চাহিদা আপনার বাজারে কতটা বেশি পরিমাণে রয়েছে। এরপর আপনাকে এমন একটি জায়গায় দোকান বা কারখানা তৈরি করতে হবে যা রাস্তার ধারে এবং সাধারণ মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। তারপর সেখানে আপনি বানাতে পারেন সরষের তেল এবং প্রতিদিন আপনার এলাকারই সাধারণ মানুষ সেই তেল কিনে উপকৃত হবে এবং আপনার ব্যবসা দিনে দিনে বড় হয়ে উঠবে।

অবশ্যই পড়ুন- সরিষার তেলের ডিলারশিপ ব্যবসা

খাবার তেল তৈরির ব্যবসা করতে কি কি কাঁচামাল লাগে? (What are the raw materials needed to make cooking oil?)

সরষের তেল তেল একসাথে আপনি যে শুধু সরষের তেল বানাবেন তা নয়, কারণ সমস্ত ধরনের খাবার তেল বানাতে পারেন একই মেশিনে। তাই আপনি একটা মেশিন কিনে খাবার তেল তৈরির ব্যবসা করতে পারেন। খাবার তেল তৈরির ব্যবসা করতে হলে যে সকল কাঁচামাল আপনাকে কিনতে হবে তা হল-

  1. সরিষা
  2. বাদাম
  3. শুকনো নারকেল
  4. সূর্যমুখীর দানা
  5. প্যাকেজিংয়ের জন্য ছোট প্লাস্টিক বোতল
  6. রেপিং প্লাস্টিক পেপার
Mustard oil making machine
সরষের তেল তৈরীর মেশিন

খাবার তেল তৈরির কাঁচামাল কোথায় কিনতে পাওয়া যায়? (Where to buy the raw materials for cooking oil?)

খাবার তেল তৈরির ব্যবসা করতে গেলে প্রয়োজনীয় সমস্ত ধরনের কাঁচামাল কেনার জন্য আপনাকে যেতে হবে আপনার এলাকার বড় কোন পাইকারি মার্কেটে। আপনি যদি ভারতে থাকেন বা পশ্চিমবঙ্গে থাকেন তাহলে কলকাতার বড়বাজার পাইকারি মার্কেট থেকে আপনি সমস্ত ধরনের কাঁচামাল প্রয়োজনমতো বেশি পরিমাণে কিনতে পারবেন। সরষের তেল তৈরির ব্যবসা (Mustard oil making) করতে হলে সরষের বস্তা অনেক বেশি পরিমাণে আপনাকে কিনতে হবে। আপনি চাইলে আপনার এলাকার ছোট পাইকারি দোকানে অর্ডার দিয়ে আনিয়ে নিতে পারেন কাঁচামালের বস্তা। তবে কম দামে কাঁচামাল কিনতে হলে অবশ্যই আপনাকে নিজে যেতে হবে পাইকারি মার্কেটে এবং সেখান থেকে নির্দিষ্ট বেশি পরিমাণে কাঁচামাল কিনতে হবে। বাংলাদেশে যারা থাকেন তারা ঢাকার চকবাজার থেকে কাঁচামাল কিনে নিয়ে এসে আপনার এলাকাতে ব্যবসা করতে পারেন।

সরষের তেল তৈরির মেশিনের দাম কত? (What is the price of mustard oil making machine?)

সর্ষের তেল তৈরির ব্যবসা করতে হলে আপনাকে তেল তৈরির মেশিন কিনতে হবে। বর্তমানে বিভিন্ন কোম্পানি বিভিন্ন রেটে ছোট অটোমেটিক সরষের তেল তৈরির মেশিন বিক্রি করেন। আপনারা চাইলে এই ধরনের কোম্পানি গুলির সাথে যোগাযোগ করে যাচাই করে নিয়ে তারপর মেশিন কিনতে পারেন। বর্তমানে বিক্রি হওয়া প্রায় প্রতিটি সরষের তেল তৈরীর মেশিনের প্রোডাকশন ক্ষমতা প্রায় একই রকম থাকে।

  • ছোট অটোমেটিক সরষের তেল তৈরির মেশিনের দাম– 40 হাজার টাকা থেকে 65 হাজার টাকা।
  • বড় অটোমেটিক মেশিনের দাম 80 হাজার টাকা থেকে 1 লাখ 20 হাজার টাকা।

সরষের তেল তৈরীর মেশিন কোথায় কিনতে পাওয়া যায়?(Where to buy mustard oil making machine?)

সরষের তেল তৈরির ব্যবসা (Mustard oil making business) করতে হলে আপনাকে অল্প দামে ভালো মেশিন কেনার ব্যবস্থা করতে হবে। বর্তমানে বিভিন্ন কোম্পানি বিভিন্ন ধরনের সরষের তেল তৈরীর মেশিন বিক্রি করলেও ভারতীয় ম্যানুফ্যাকচারার কোম্পানি যে সকল মেশিন তৈরি করে বিক্রি করে তা অন্য চায়না কোম্পানির মেশিনের থেকে বহুগুণ ভালো। বর্তমান বাজারে চায়না মেশিন এতটাই বাজার দখল করে রেখেছে যে আপনি সঠিক মেশিন কেনার আগে তা বিচার করে দেখে নিতে হবে।

কম দামে ভালো কোয়ালিটির মেশিন কিনতে হলে আপনাকে আপনার এলাকার আশেপাশে বড় মেশিন ম্যানুফ্যাকচারারের কোম্পানিতে গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে তাই আপনাদের সুবিধার্থে কলকাতার বেশ কিছু বড় ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানির যোগাযোগ নাম্বার নিচে দেওয়া হল। বাংলাদেশে যারা থাকেন তারা বাংলাদেশ মেশিনারিজ নামে যে মেশিন ম্যানুফ্যাকচারার কোম্পানি বা মেশিন ইম্পরট্যান্ট কোম্পানি রয়েছে তার কাছ থেকে মেশিন কিনতে পারেন এইরকম আরও অনেক বড় বড় মেশিন ম্যানুফ্যাকচারার কোম্পানি আছে ঢাকাতে, একটু খোঁজ নিলেই আপনারা পেয়ে যাবেন সরষের তেল তৈরির মেশিন কম দামে। আপনাদের সুবিধার্থে কয়েকটি কোম্পানির নাম যোগাযোগ নাম্বার নিচে দেওয়া হল-

  • 9810 288 464
  • 9868 165 179
  • 6290 610 895(কলকাতা)
  • 01865 125940 (বাংলাদেশ)

সরষের তেল তৈরির ব্যবসা করতে কত বড় জায়গার প্রয়োজন? (How much space is needed to Mustard oil making business?)

সরষের তেল তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে কমপক্ষে 100 স্কয়ার ফিট একটি ঘর নির্বাচন করতে হবে। আপনি যদি ছোট মেশিন নিয়ে কাজ শুরু করেন সেক্ষেত্রে 10/10 এর একটি ঘর ভাড়া নিয়ে কাজ করতে হবে। প্রয়োজনীয় কাঁচামাল রাখা থেকে শুরু করে তৈরি হওয়া সর্ষের তেল বা অন্যান্য তেলের বোতল গুলি রাখার মতো পর্যাপ্ত পরিমাণের জায়গা না থাকলে আপনার এই ব্যবসায় সফলতা অর্জন করা অনেক দুষ্কর হয়ে দাঁড়াবে। তাই আপনি যখন তেল তৈরির ব্যবসা শুরু করবেন তখন অবশ্যই আপনাকে একটি বড়সড় ঘর ভাড়া নিয়ে অথবা বানিয়ে নিয়ে তারপর ব্যবসার কাজ করতে হবে।

কিভাবে সরষের তেল তৈরি হয়? (How is Mustard oil making?)

সরষের তেল তৈরির ব্যবসা (Mustard oil making business) করতে হলে আপনাকে জানতে হবে সরষের তেল কিভাবে তৈরি হয়। বর্তমানে অটোমেটিক মেশিনে সরষের তেল বা অন্যান্য তেল তৈরি করা খুবই সহজ হয়ে গেছে। আপনি আধঘন্টা থেকে এক ঘন্টার প্রশিক্ষণ নিলেই নিজে উদ্যোগে মেশিন চালিয়ে ব্যবসা করতে পারবেন। তবুও তেল তৈরির সাময়িক প্রশিক্ষণটি হল-

  • মেশিনের হপারে পরিমাণমতো সরষে দানা ঢেলে দিন।
  • মেশিন চালিয়ে দিলে মেশিনের এক প্রান্ত দিয়ে তেল বেরোবে অন্য প্রান্তে সরিষার খোল বা অবশিষ্ট টা বেরোবে।
  • একই পদ্ধতিতে বাদাম থেকে তেল তৈরি করতে পারেন এবং নারকেল ভাঙিয়ে নারকেল তেল তৈরি করতে পারেন।
  • তৈরি হয়ে যাওয়া তেলটি কয়েক ঘন্টা একটি পাত্রে রেখে দিলে তলায় নোংরা বসে যাবে এবং পরিষ্কার তেলটি বোতলে ভরে ফেলতে হবে।
  • তেলের বোতলের গায়ে আপনার কোম্পানির প্যাকেজিং স্টিকার লাগিয়ে মার্কেটে বিক্রি করতে পারেন।
  • 1 কেজি সরষে থেকে 350-400 গ্রাম খাঁটি তেল পাওয়া যায়।

আরো পড়ুন- মিষ্টির ব্যবসা শুরু করুন

খাবারের তেল তৈরির ব্যবসা করতে কি কি লাইসেন্সের প্রয়োজন? (What license is required to make cooking oil business?)

সরিষার তেলের মত যেকোনো ধরনের খাবারের তেল তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে সর্ব প্রথম খাদ্য দপ্তর থেকে লাইসেন্স নিতে হবে। এরপর আপনি যে ব্যবসা করছেন তার জন্য সরকারি অনুমোদন নেওয়ার প্রয়োজন পড়বে। ব্যবসার ব্যবহৃত ইলেকট্রিকের জন্য ইলেকট্রিক দপ্তরে আবেদন করতে হবে। সব মিলিয়ে বলা যেতে পারে যে কোন ব্যবসা করার জন্য যে লাইসেন্স প্রয়োজন হয় তা ব্যবসার জন্য অত্যান্ত প্রয়োজনীয় একটি জিনিস। বিভিন্ন আইনি জটিলতা এড়াতে লাইসেন্স নিয়ে ব্যবসা করা ভীষণ প্রয়োজনীয়। আপনার এই সরষের তেল তৈরির ব্যবসায় (Mustard oil making) যে সকল লাইসেন্স প্রয়োজন তা হল-

  • ট্রেড লাইসেন্স
  • FSSAI লাইসেন্স
  • GST নাম্বার
  • কমার্শিয়াল ইলেকট্রিক
  • MSME লাইসেন্স
  • নাগরিকত্বের প্রমাণপত্র
  • ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নাম্বার

এই সমস্ত ধরনের লাইসেন্স বর্তমানে অনলাইনে আবেদন করে পাওয়া যায়। আর আপনি যদি অনলাইন থেকে না নিতে চান তাহলে প্রতিটি লাইসেন্সের জন্য আলাদা আলাদা দপ্তরে গিয়ে লাইসেন্স নিতে পারেন। কিংবা আপনার এলাকার পঞ্চায়েত ও বিডিও অফিসে গিয়ে যোগাযোগ করে সব প্রকার লাইসেন্স পেতে পারেন। সমস্ত লাইসেন্স গুলি একত্রিতে আপনার খরচ পড়বে দুই থেকে তিন হাজার টাকার মতো।

নারকেল তেল তৈরির ব্যবসা কিভাবে করা যায়? (How to make coconut oil business?)

আপনি যে তেল তৈরির মেশিন কিনেছেন এবং যে পদ্ধতিতে সরিষার তেল তৈরি করছেন ঠিক একই পদ্ধতিতে নারকেল তেল তৈরি করা যায়। আপনি যখন একটি তেলের দোকান দেবেন তখন আপনার দোকানে সরষের তেলের পাশাপাশি নারকেল তেল এবং বাদামের তেল আপনি বিক্রি করতে পারেন। বর্তমান বাজারে সরষের তেল এবং নারকেল তেলের ডিমান্ড অনেক বেশি থাকার কারণে আপনি সরষের তেল তৈরির ব্যবসার (Mustard oil making) সাথে সাথেই নারকেল তেল তৈরির ব্যবসা ও একত্রিত করতে পারেন। ফলে এই ব্যবসা করার জন্য আলাদা করে নতুন কোন জায়গা বা খড় ভাড়া নেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না একই জায়গাতে সব রকম ব্যবসা করা যায়।

Oil making business
তেল তৈরির ব্যবসা

কিভাবে সরষের তেল তৈরির ব্যবসার মার্কেটিং করবেন?

যে কোন ব্যবসা করতে গেলে তার প্রধান অঙ্গ হিসেবে মার্কেটিং প্রত্যেক ব্যবসায়ীকেই করতে হয়। আর আপনি যখন সরষের তেল তৈরির ব্যবসা (Mustard oil making business) শুরু করবেন তখন অবশ্যই আপনাকেও এই ব্যবসার বৃদ্ধির জন্য এবং সফলভাবে ব্যবসা করার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতিতে মার্কেটিং করতে হবে। বর্তমানে যেহেতু আগে থেকেই বিভিন্ন নামিদামি কোম্পানি বাজারে তাদের তেল বিক্রি করছে তাই আপনি যদি সঠিক পদ্ধতিতে মার্কেটিং করতে পারেন তবেই আপনি এই ব্যবসায় সফলতা অর্জন করতে পারবেন। আপনি খেয়াল করলে দেখতে পাবেন বড় বড় কোম্পানিটাও প্রত্যেক মাসে বিজ্ঞাপনের পিছনে অনেক টাকা খরচ করে। আপনার ব্যবসায় মার্কেটিং করে যে পদ্ধতিতে আপনি সফলতা অর্জন করতে পারবেন তা হল-

  • আপনি যে এলাকায় ব্যবসা করছেন সেই এলাকার আশেপাশের সাধারণ মানুষ যাতে সরষের তেল কিনে বা আপনার দোকানে বিক্রি হওয়া যে কোন খাবারের তেল ও নারকেল তেল কেনে তার জন্য আপনাকে সেই এলাকার মধ্য বেশি করে মার্কেটিং করতে হবে।
  • আপনার ব্যবসার এলাকার আশেপাশের অঞ্চলে ছোট বড় পোস্টার ছাপিয়ে আপনি বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।
  • বড় বাজার মোড় এলাকাতে এবং জনবহুল এলাকার মোড় ও রাস্তার ধারে ব্যানার ফ্লেক্স ছাপিয়ে প্রচার করতে পারেন আপনার ব্যবসার।
  • আপনার এলাকার ছোট বড় মুদিখানা দোকান থেকে শুরু করে রিটেল দোকানগুলিতে আপনি সরষের তেল বিক্রি করতে পারেন।
  • আপনার এলাকার বড় পাইকারি দোকানগুলিতে আপনি পাইকারি দামে তেল বিক্রি করতে পারেন।
  • সাধারণ মানুষ যাতে খাঁটি তেল কিনে তার জন্য সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছাতে আপনি এলাকায় এলাকায় মাইকিং করে প্রচার করতে পারেন।
  • মানে যেহেতু সাধারণ মানুষ অনলাইনে এর ওপর নির্ভরশীল তাই আপনি অনলাইনে হোম ডেলিভারির ব্যবস্থা করতে পারেন আপনার এই তেল তৈরির ব্যবসাতে।
  • গুগল ফেসবুক ইউটিউব এ অল্প টাকা খরচ করে আপনি অনলাইন বিজ্ঞাপনের ব্যবস্থা করতে পারেন। যেহেতু বর্তমানে সাধারণ মানুষ এই ধরনের ইন্টারনেটের সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে বেশি সময় থাকে তাই এইসব সাইটে অনলাইনে বিজ্ঞাপন দিলে আপনার ব্যবসার নাম সাধারণ মানুষের কাছে খুব দ্রুত ছড়িয়ে যাবে এবং ব্যবসা ও খুব তাড়াতাড়ি বড় হয়ে উঠবে।
  • ফেসবুকে ইনস্টাগ্রামে আপনি পেজ তৈরি করে সেখানে আপনার দোকানে তৈরি হওয়া খাঁটি সরিষার তেল এবং অন্যান্য খাবারের তেলের বিজ্ঞাপন ও পোস্ট দিতে পারেন।
  • বিভিন্ন এলাকাতে তেলের ডিস্ট্রিবিউটর তৈরি করে সেই ডিস্ট্রিবিউটরের মারফত আপনি আপনার ব্যবসায় তৈরি হওয়া তেল বিক্রি করতে পারেন।

অবশ্যই পড়ুন- চানাচুর তৈরির ব্যবসা করে মাসে 1 লাখ টাকা আয়

সরষের তেলের ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে?

আপনি যদি নিজেও উদ্যোগে সরষের তেল তৈরীর কোম্পানি খোলেন এবং সেখানে সরষের তেল তৈরির ব্যবসা (Mustard oil making business) শুরু করেন তাহলে আপনার এই ব্যবসা অল্প পুঁজিতেও শুরু করা যায় আবার অনেক পুঁজি বিনিয়োগ করে বড় আকারের করা যায়। আপনি যদি ছোট একটা মেশিন কিনে এই ব্যবসা করতে চান তাহলে আপনাকে কমপক্ষে 60 থেকে 70 হাজার টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। আর আপনি যদি আরেকটু ভালো অটোমেটিক অয়েল মেকিং মেশিন কিনে বড় আকারের তেল তৈরির ব্যবসা করতে চান তাহলে আপনাকে কমপক্ষে 1 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে এই ব্যবসাতে।

তবে ব্যবসার শুরুটা আপনি অল্প পুঁজি বিনিয়োগ করে শুরু করুন। ছোট করে ব্যবসা করলে আপনি মার্কেট চাহিদা এবং নিজস্ব মার্কেট তৈরি করতে পারবেন। আর আপনার ঝুঁকির সম্ভাবনাও অনেক কমে যাবে। তাই ব্যবসায় অল্প পুঁজি বিনিয়োগ করে ব্যবসাটিকে আস্তে আস্তে বড় করে তুলুন নিজস্ব মার্কেট বানান এবং এই ব্যবসায় সফলতা অর্জন করুন।

সরষের তেল তৈরির ব্যবসায় লাভ কত? (How much is the profit in Mustard oil making business?)

সরষের তেল তৈরির ব্যবসা (Mustard oil making business) যেমন অল্প পুঁজি বিনিয়োগ করে আপনি শুরু করতে পারেন তেমন এই ব্যবসা থেকে আপনি প্রতিদিন কমপক্ষে 2 থেকে 4 হাজার টাকা আয় করতে পারেন। এক ঘন্টায় মেশিন চললে 25 থেকে 30 কেজি সরষে ভাঙানো যায়। 8 ঘণ্টা মেশিন চললে 200 কেজি সরষে ভাঙাতে পারবেন। বর্তমান বাজারে সর্ষের তেলের দাম 150 টাকা থেকে 200 টাকা দরে বিক্রি হলে আপনার কোম্পানিতে তৈরি হওয়া সর্ষের তেলের দাম প্রতি লিটারে 50 টাকা করে বেশি দামে বিক্রি করতে পারবেন কারণ এই তেলটি হয় খাঁটি।

যদি প্রতি লিটার তেলে 30 থেকে 50 টাকা আয় করেন তাহলে প্রতিদিন 25 থেকে 50 লিটার তেল বিক্রি করে আপনি 2 হাজার টাকা থেকে 4 হাজার টাকারও বেশি আয় করতে পারবেন। একজন ছোট তেলের ব্যবসায়ী প্রতিমাসে 30 হাজার টাকা থেকে 70 হাজার টাকা আয় করে থাকেন। ব্যবসার লাভটা নির্ভর করবে আপনি কোন এলাকাতে তেল তৈরির ব্যবসা করছেন এবং কি পদ্ধতিতে মার্কেটিং করছেন।

জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন ও FAQ

সর্ষের তেলের ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে?

উত্তর: 50 হাজার টাকা থেকে 1 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে হয় সর্ষের তেলের ব্যবসা করতে।

নারকেল তেল ভাঙ্গানোর মেশিনের দাম কত?

উত্তর: 60 হাজার টাকা থেকে 70 হাজার টাকার মধ্য অটোমেটিক নারকেল তেল ভাঙ্গানোর মেশিন পাওয়া যায়।

বাদামের তেল কিভাবে তৈরি করা হয়?

উত্তর: তেল তৈরির মেশিনের হোপারে বাদাম ঢেলে দিলে কিছুক্ষণের মধ্যেই একদিক দিয়ে তেল বেরোবে এবং অন্য প্রান্ত দিয়ে বাদামের অবশিষ্ট বা খোল বেরিয়ে আসবে।

গ্রামে কি তেল তৈরির ব্যবসা করা যায়?

উত্তর: গ্রামের বাজারে একটি দোকান ভাড়া নিয়ে আপনি তেল তৈরির ব্যবসা করতে পারেন।

তেল তৈরির ব্যবসায় লাভ কত?

উত্তর: প্রতিদিন 2 হাজার টাকা থেকে 4 হাজার টাকার বেশি লাভ হয় তেল তৈরির ব্যবসায়

নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

ব্যবসা করুন 5 হাজার টাকায়

নুডলস তৈরির ব্যবসা

Leave a Comment