হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি কিভাবে পাওয়া যায়? | How to get Hindustan Petroleum franchise? No 1 Right Now

হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি পাবার জন্য আপনাকে কিছু তথ্য জানতে হবে। তেলের দাম দিনে দিনে বাড়লেও গাড়ির সংখ্যা কমছে না। ভারতের প্রতিটা রাস্তাতে অগণিত গাড়ি প্রতিদিন চলাচল করে। আয় মানুষের স্ট্যাটাস দেখানো এবং বিলাসবহুল জীবন যাপনের অঙ্গাঙ্গী ভাবে জড়িত হয়ে রয়েছে এই সকল মোটর গাড়ি গুলো। গাড়ি থাকলেই তার তেলের দরকার পড়বে তাই আপনি যদি হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে একটি পেট্রোল পাম্প তৈরি করেন তাহলে অবশ্যই আপনি লাভবান হবেন।

দিনে দিনে প্রতিটা এরিয়াতে একটি করে পেট্রোল পাম্প তৈরি হওয়ার প্রয়োজন পড়ছে এবং পেট্রোল পাম্প এর চাহিদাও বাড়ছে। পেট্রোল, ডিজেল এইসকল জ্বালানি গুলি এমন জিনিস, যা যতই বাড়ুক না কেন মানুষকে কিনতেই হবে তার জীবনযাত্রা সচল রাখার জন্য। তাই জন্য পেট্রোল পাম্প একটি লাভজনক ব্যবসার মধ্যে পড়ে। শহর হোক কিংবা গ্রাম প্রতিটা জায়গাতেই যেহেতু গাড়ি বর্তমানে চলাচল করে, তাই এলাকা অনুযায়ী পেট্রোল পাম্প তৈরি করলে এই ব্যবসায় লস এর কোনো সম্ভাবনা থাকেনা।

বিশেষত যদি হাই রোডের পাশে আপনি হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে একটি পেট্রোল পাম্প তৈরি করেন তাহলে অবশ্যই পেট্রোল পাম্পের সাথে সাথে প্রাথমিক চিকিৎসা, টেলিফোন এবং জরুরী পরিষেবা প্রদানের ব্যবস্থা রাখবেন। এতে করে আপনার পেট্রলপাম্পে যেমন গ্রাহকের দৃষ্টি আকর্ষণ করবে, আবার গ্রাহকের অতিরিক্ত সুবিধা থাকার জন্য নিয়মিত বেশকিছু গ্রাহকও তৈরি হয়ে যাবে। বর্তমানে হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি খুব সহজেই পাওয়া যায় যদি সঠিক নিয়মাবলী পালন করা হয়। পরিসংখ্যান অনুযায়ী সারা পৃথিবীর মধ্যে ভারত তৃতীয় স্থান অর্জন করে তেল ব্যবহারের দিক দিয়ে। এই কারণে ভারতে পেট্রোল পাম্প করে ব্যবসা করলে অনেক বেশি পরিমাণে লাভবান হওয়া যায়। তবে একটা জিনিস মাথায় রাখতে হবে পেট্রোল পাম্পের ব্যবসা অল্প পুঁজি দিয়ে করা সম্ভব নয়। এই ব্যবসা করতে গেলে বেশ কিছু পুঁজির প্রয়োজন পড়ে।

Hindustan Petroleum franchise
হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি

Table of Contents

পেট্রোল পাম্পের ব্যবসা কিভাবে করবেন? (How to do petrol pump business?)

একটা নতুন করে পেট্রোল পাম্প বানাতে হলে অবশ্যই আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে যে এলাকায় আপনি ব্যবসা করবেন যেন তার আশেপাশে কোন হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি না থাকে। একটি এলাকার মধ্যে একটি হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকলে তবেই ভালো করে আপনি ব্যবসা করতে পারবেন।
এছাড়াও আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে যে এলাকাতে আপনি পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে চাইছেন তার কাছাকাছি যেন দ্বিতীয় কোন পেট্রোল পাম্প না থাকে।


পেট্রোল পাম্পের অবস্থানের দিকে আপনাকে লক্ষ্য রাখতে হবে। অর্থাৎ যে স্থানে আপনি পেট্রোল পাম্প তৈরি করবেন সেখানে যেন প্রচুর পরিমাণে গাড়ি চলাচল করে।
পেট্রলপাম যেন রাস্তার সম্পূর্ণ পাশে হয়ে থাকে এবং পেট্রোল পাম্পে গাড়ি রাখার পর্যাপ্ত যেন জায়গা থাকে।
জরুরী কিছু সুবিধা পেট্রোলপাম্পে অবশ্যই আপনাকে রাখতে হবে।
এই ভাবে যদি আপনি হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন তাহলে অবশ্যই আপনি সফল ব্যবসায়ী হতে পারবেন এবং এই ব্যবসায় আপনাকে কোনদিনও পিছন ফিরে তাকানোর প্রয়োজন পড়বে না।

HPCL কেন পেট্রোল পাম্পে নিতে হয়? (Why take HPCL at petrol pump?)

HPCL একটি সংস্থা যা পেট্রোলিয়াম ব্যবসাকে একত্রিত করে রাখে।HPCL ও ‘অয়েল এন্ড ন্যাচারাল গ্যাস কর্পোরেশন’ একটি বৃহৎ পেট্রোলিয়াম প্রতিষ্ঠান। আমরা অনেকেই জানি হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম জন্ম নিয়েছিল 1952 সালে। বর্তমানে 70 বছর ধরে হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম তাদের সার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে প্রতিটি গ্রাহককে। তাই জন্য অবশ্যই হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি নিলে আপনার ব্যবসার উন্নতি হবে।

বর্তমানে অয়েল এন্ড ন্যাচারাল গ্যাস কর্পোরেশন সারা ভারতে 25% বাজার দখল করে রেখেছে। এছাড়াও এদের মূল সম্পদের পরিমাণ 189906 কোটি টাকার মতো। যেহেতু হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ভারতের বৃহত্তম পেট্রোল পাম্প কম্পানি তাই আপনি হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে ব্যবসা করলে অনেক উপকার পাবেন।

HPCL এর কিছু মূল বৈশিষ্ট্য দেখে নেওয়া যাক

  • HPCL এর লক্ষ্য সমস্ত ভারতের জনগণকে গ্যাস ও পেট্রোলিয়াম সার্ভিস দিয়ে তাদের সমস্যার সমাধান করা।
  • HPCL সারা ভারতে 19000 এরও বেশি পেট্রলপাম বা ফ্র্যাঞ্চাইজি দিয়ে রেখেছে।
  • HPCL fortune সেরা কিছু পেট্রোলিয়াম কোম্পানী গুলির মধ্য প্রথম তালিকাতে আসে।

অবশ্যই পড়ুন- গরুর খামারের ব্যবসা শুরু করে 10 লাখ টাকা আয়

হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে পেট্রোল পাম্প খোলার জন্য যোগ্যতা

হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি বা বলা যেতে পারে HPCL ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে যদি আপনি একটি পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে চান তাহলে অবশ্যই সবচেয়ে প্রথমে দরকার পেট্রোল পাম্প লাইসেন্স এর।HPCL তার লাইসেন্সের জন্য প্রতিটা ডিলার এর কাছ থেকে নিয়ে থাকে 1.18 টাকা প্রতি KL পেট্রোলে এবং 1.16 টাকা প্রতি KL ডিজেলে।

ডিলারশিপ পাওয়ার জন্য যে সকল জিনিষগুলি আপনাকে মেনে চলতে হবে সেগুলো হলো

  • ভারতের নাগরিক অবশ্যই হতে হবে।
  • যদি কোন এনআরআই পেট্রোল পাম্পের জন্য আবেদন করেন তাহলে তাকে অবশ্যই ভারতে ছ মাস থাকতে হবে।
  • আবেদনকারী তার বয়স 21 থেকে 55 বছরের মধ্যে হতে হবে।
  • শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে অবশ্যই 10 এবং 12 পাস হতে হবে।
  • যেখানে ব্যবসা করবেন তার জায়গার কাগজপত্র দিতে হবে।

হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি পাওয়ার প্রয়োজনীয় নথিপত্র কি কি?(What are the documents required to get Hindustan Petroleum franchise?)

হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি (HPCL ফ্র্যাঞ্চাইজি) নেবার জন্য অবশ্যই বেশকিছু নথিপত্র আপনাকে দিতে হবে।

  • নাগরিকত্বের প্রমাণ
  • জন্ম প্রমাণপত্র কিংবা আধার কার্ড
  • শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রমান পত্র
  • জায়গার দলিল এবং আইনি কাগজপত্র
  • ট্রেড লাইসেন্সের এক কপি জেরক্স
  • ব্যাঙ্ক পাসবুক এবং একাউন্টের স্টেটমেন্ট।
  • মিউচুয়াল ফান্ডের কপি
  • ডিম্যাট একাউন্টের কপি
petrol pump business
পেট্রোল পাম্পের ব্যবসা

পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে কতটা জায়গার প্রয়োজন হয়? (How much space is needed to build a petrol pump?)

হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে আপনি যখন প্রথমে একটি পেট্রোল পাম্প তৈরি করবেন তখন অবশ্যই আপনাকে মাথায় রাখতে হবে পেট্রোল পাম্প তৈরি করার সঠিক জায়গা যেন থাকে। পেট্রোল পাম্প তৈরি করার জন্য সবচেয়ে প্রধান জিনিস হচ্ছে জমি। এই জমিলা জায়গাটি আপনার নিজস্ব হতে পারে কিংবা আপনি দীর্ঘমেয়াদি লিজ নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

যদি জায়গার মালিক আপনি হন তাহলে অবশ্যই তার আইনগত প্রমাণ অর্থাৎ দলিলগুলো আপনাকে গুছিয়ে রাখতে হবে। আপনি যদি নিজে কোন জায়গা নিয়ে ব্যবসা করেন তাহলে সেই জায়গার আইনি কাগজপত্র এবং দলিল আপনাকে সর্বদা কাছে রাখতে হবে। পেট্রোল পাম্পের ব্যবসা যেমন লাভজনক একটি ব্যবসা তেমন এই ব্যবসা অবস্থানের ওপর নির্ভর করে তার লাভের পরিমাণ টা।
পেট্রোল পাম্প যেহেতু দুই ধরনের হয়ে থাকে একটি শহুরে এবং আধা শহুরে এলাকার পেট্রোল পাম্প। আরেকটি গ্রামীণ এলাকার পেট্রোল পাম্প। আপনি কোন এলাকাতে পেট্রোল পাম্প তৈরি করছেন সম্পূর্ণটা নির্ভর করবে অর্থনৈতিক ব্যবস্থার উপর।


সাধারণত একটি শহরের মধ্যে যদি আপনি পেট্রোল পাম্প তৈরি করেন তাহলে আপনার 800 বর্গমিটারের একটা জায়গা হলেই চলবে। আবার আপনি যদি গ্রামীণ এলাকার রাস্তার ধারে একটি পেট্রোল পাম্প তৈরি করেন তাহলে অবশ্যই আপনার সর্বনিম্ন 1200 বর্গমিটারের জায়গার প্রয়োজন পড়বে। আপনি চাইলে আরও বেশি বড় জায়গা নিয়ে পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে পারেন তবে জায়গা যত বড় হবে পেট্রলপাম্প দেখতে এবং পেট্রোল পাম্পের ব্যবসায়ও লাভের পরিমাণ টা ততটাই বৃদ্ধি পাবে।

Hindustan Petroleum Office
হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম অফিস

হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্রাঞ্চাইজির জন্য কিভাবে আবেদন করা হয়?

আমরা হয়তো অনেকেই জানি যে যেকোন ফ্র্যাঞ্চাইজি নিতে গেলে আমাদের আবেদন করতে হয়। প্রতিটা কোম্পানির আলাদা আলাদা নিয়ম থাকে তাই আবেদন করার বিভিন্ন নিয়ম থাকে। হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্রাঞ্চাইজি নিতে গেলেও আপনাকে অনলাইন এবং অফলাইন দুই পদ্ধতিতেই আবেদন করতে পারেন। চলুন দেখে নেয়া যাক HPCL পেট্রোল পাম্প তৈরি করার আবেদনের পদ্ধতি গুলি।

HPCL ওয়েবসাইটে গিয়ে পেট্রোল পাম্পের ফ্র্যাঞ্চাইজি জন্য আবেদন করতে হবে।
অফলাইনে করতে হলে আপনাকে অবশ্যই হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম এর অফিসে গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে।
আবেদন করার সময় অবশ্যই আপনাকে HPCL এর একটা ডিমান্ড আকারের নামাঙ্কিত সামান্য টাকা দিতে হবে।
গ্রামীন পেট্রোল পাম্পের যে ফর্মটা আপনি ফিলাপ করে জমা দেবেন তার জন্য 1,100 টাকা দিতে হবে।
আপনি যদি SC/ST হয়ে থাকেন তাহলে এই ফরমের দাম 150 টাকা দিতে হবে।
এছাড়া আপনি যদি শহরাঞ্চলে পেট্রোল পাম্পের জন্য আবেদন করেন তাহলে আপনাকে 11000 টাকা ফরম ফিলাপের জন্য দিতে হবে।

অবশ্যই পড়ুন- কুরিয়ার সার্ভিস ব্যবসা কিভাবে শুরু করা যায়

HP পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে কত টাকা খরচ হয়?(How much does it cost to build an HP gas station?)

একটা HP পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে আপনার বেশ কিছু টাকা খরচ করতে হবে। কারন প্রথমে আপনাকে একটি জায়গা কিনতে হবে, তারপর সেখানে পেট্রলপাম বানানোর জন্য কনস্ট্রাকশন করতে হবে। এরপর বিভিন্ন গ্রাহকের চাহিদা মেটানোর জন্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার বিকাশ আপনার পেট্রোলপাম্পে রাখতে হবে। এছাড়া পেট্রোলপাম্পের বিজ্ঞাপন স্বরূপ অল্প কিছু টাকা খরচ হবে। তবুও আপনার কিভাবে কোন কোন খাতে খরচা হবে টাকা তার সম্পর্কিত যৎসামান্য কিছু ধারণা দেওয়া হলো-

  • হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি একবার পেয়ে পেট্রোল পাম্প বানাতে গেলে অবশ্যই পেট্রোল পাম্পের নিরাপত্তার কথা ভেবে আপনার অল্প কিছু টাকা বিনিয়োগ করতে হতে পারে।
  • আপনি যদি গ্রামীণ পেট্রোল পাম্প তৈরি করেন তাহলে আপনার খরচ হবে 8 থেকে 10 লক্ষ টাকা।
  • আপনি যদি কোনো শহরাঞ্চলে পেট্রলপাম বানাতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে 30 থেকে 50 লক্ষ টাকা।
  • এছাড়া বিভিন্ন লাইসেন্স এবং ইন্সুরেন্স করতে আপনার খরচ হবে 10 থেকে 20 হাজার টাকা।

পেট্রোল পাম্পের ব্যবসা অনেক লাভজনক একটি ব্যবসা। এই ব্যবসা শুরু করতে যেমন অল্প কিছু টাকা খরচ করতে হয় তেমন লাভের পরিমাণটাও বিপুল পরিমাণে হয়ে থাকে। আপনি যদি হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে ব্যবসা করতে চান তবে এখনই ব্যবসা করার জন্য আবেদন করুন। ভারতবর্ষের বড় বড় পেট্রোলিয়াম ব্যান্ড গুলির মধ্য শীর্ষ স্থানে থাকে হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম কোম্পানি।

জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন

প্রশ্ন: একটা পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে কত টাকা খরচ করতে হয়?

উত্তর: ভারতে আপনি যে স্থানে পেট্রোল পাম্প করবেন সেই স্থানে জায়গার দাম কেমন চলছে তার ওপর নির্ভর করবে পেট্রোল পাম্প তৈরি করার খরচ। তবুও বলা যেতে পারে একটি পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে আপনার খরচ হতে পারে 30 থেকে 50 লক্ষ টাকার মধ্যে। গ্রামাঞ্চলে পেট্রোল পাম্প তৈরি করতে গেলে 15 লাখ টাকার মধ্যে পেট্রোল পাম্প তৈরি হয়ে যাবে।

প্রশ্ন: পেট্রোল পাম্প তৈরি করার জন্য কত বড় জায়গার প্রয়োজন?

উত্তর: সাধারণত একটি পেট্রলপাম তৈরি করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে ন্যূনতম 800 বর্গমিটার থেকে 1000 বর্গমিটার এর মধ্যে জায়গার প্রয়োজন।

প্রশ্ন: কিভাবে HP পেট্রোল পাম্পের জন্য অনলাইনে আবেদন করা হয়?

উত্তর: HP পেট্রোলিয়ামের অনলাইন ওয়েবসাইট https://www.hindustanpetroleum.com যোগাযোগ করতে পারেন।

প্রশ্ন: ভারতের সেরা পেট্রোল পাম্প কোম্পানি কি কি? (What are the best petrol pump companies in India?)

উত্তর: বর্তমানে ভারতে অনেক পেট্রোলিয়াম কোম্পানি থাকলেও শীর্ষস্থানে রয়েছে-

  1. হিন্দুস্থান পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড
  2. ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশন লিমিটেড
  3. রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড
  4. ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড
  5. সেল ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড

যদি কোন সমস্যা হয় তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানাবেন। যত দ্রুত সম্ভব আমরা আপনাদের সমস্যার সমাধান করার চেষ্টা করব। আমাদের এই পোষ্টে যদি কোন ভূল-ত্রূটি থেকে থাকে তাহলে জানাতে ভুলবেন না।

নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

দুধের ব্যবসা করে 50 হাজার টাকা আয়

মহিলাদের জন্য ঘরে বসে ব্যবসা

Leave a Comment