সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসায় সফলতা | Business of making soda water for 6 lakh rupees, right now

বর্তমানে প্রায় প্রতিটি বাজারে সোডা ওয়াটারের চাহিদা অনেক বেশি থাকাই এই ব্যবসা যারা করছেন তারা সকলেই সফল ব্যবসায়ী হয়ে উঠছেন। আপনি যদি নিজে উদ্যোগে সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা শুরু করেন তাহলে এই ব্যবসা থেকে আপনিও একজন সফল ব্যবসায়ী হয়ে উঠতে পারবেন। বর্তমান সময়ে যেহেতু প্রায় প্রতিটি ড্রিংকে সোডা ওয়াটারের ব্যবহার হয়ে থাকে, তাই সোডা ওয়াটারের চাহিদা ও বাজারে বেশি থাকে। তাই আজ সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য নিয়ে প্রস্তুত আজকের এই প্রতিবেদন। সম্পূর্ণ পোস্টটি আপনিও ভালো করে পড়লে নিজেই সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করতে পারবেন।

Table of Contents

কিভাবে সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করা যায়? (How to start a soda water making business ?)

সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে বেশ কয়েক ধরনের মেশিন কিনে কাজ করতে হবে। বর্তমান বাজারে এই সোডা ওয়াটারের চাহিদা বেশি থাকার জন্য এই ব্যবসা আপনি যখন করবেন তখন খুব দ্রুততার সাথে সমস্ত মার্কেট ধরে ব্যবসা করতে পারবেন। সোডা ওয়াটার তৈরি করার জন্য যেসব মেশিনারির প্রয়োজন হয় তা কিনতে একটু বেশি টাকা খরচ হয় তাই এই ব্যবসা করতে একটু বেশি পুঁজি বিনিয়োগ করতে হবে। আপনি চাইলে অল্প পুঁজি বিনিয়োগ করেও ছোট প্লান্ট লাগাতে পারেন। চলুন দেখে নেয়া যাক এই ব্যবসা করার জন্য সমস্ত নিয়মাবলী সম্পর্কে।

অবশ্যই পড়ুন- মিনারেল ওয়াটার প্লান্ট ব্যবসা

সোডা ওয়াটার তৈরি করতে কি কি কাঁচামালের প্রয়োজন? (What raw materials are needed to make soda water?)

ছোট ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করতে যে সকল কাঁচামাল গুলির প্রয়োজন পড়ে তা খুবই সহজলভ্য এবং প্রায় সমস্ত মার্কেটেই কিনতে পাওয়া যায়। বর্তমান সময়ে আপনি যখন এই ব্যবসা করবেন তখন প্রয়োজনীয় কাঁচামাল হিসেবে যে প্রধান দুটি জিনিসের ব্যবহার হয়ে থাকে তা সহজেই জোগাড় করতে পারবেন। সোডা ওয়াটার তৈরীর কাঁচামাল গুলি হল-

  • মিনারেল ওয়াটার বা শুদ্ধ জল
  • কার্বন-ডাই-অক্সাইড
Soda water making machine
সোডা ওয়াটার তৈরির মেশিন

সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করতে কি কি মেশিন লাগে? (What machines are needed to make soda water?)

ছোট ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করার জন্য আপনাকে অবশ্যই ভালো কোয়ালিটির আধুনিক মেশিন কিনতে হবে। বর্তমান সময়ে সোডা ওয়াটার তৈরি করতে যেসব মেশিন ব্যবহার করা হয়ে থাকে তা হল-

  • চিলার মেশিন
  • সোডা কম্পোজার মেশিন
  • সোডা ওয়াটার ফিলিং মেশিন
  • ক্রাউন ক্যাপসেলিং মেশিন

সোডা ওয়াটার তৈরির মেশিনের দাম কত? (How much does a soda water making machine cost?)

ছোটা ওয়াটার তৈরির ব্যবসার জন্য প্রয়োজনীয় মেশিনগুলি বিভিন্ন দামে বিক্রয় হয়ে থাকে বিভিন্ন মেশিনারি দোকানে ও কোম্পানিতে। আপনি এই ব্যবসা করার আগে বিভিন্ন জায়গায় দাম যাচাই করে তারপর মেশিন কিনবেন। বর্তমান সময়ে সোডা ওয়াটার তৈরির মেশিন গুলির দাম হল-

মেশিনদাম
চিলার মেশিন1 লক্ষ 1.5 লক্ষ টাকা
সোডা কম্পোজার মেশিন5-15 হাজার টাকা
সোডা ওয়াটার ফিলিং মেশিন2-3 লক্ষ টাকা
ক্রাউন ক্যাপসেলিং মেশিন8-10 হাজার টাকা

সোডা ওয়াটার তৈরির মেশিন কোথায় কিনতে পাওয়া যায়? (Where to buy soda water making machine?)

সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করতে গেলে যে সকল মেশিন কিনতে হবে সেই মেশিনগুলি ভালো কোয়ালিটির কিনা তা যাচাই করেই কিনবেন। বর্তমান সময়ে বিভিন্ন মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানি এই সোডা ওয়াটার তৈরির মেশিন বিক্রি করে থাকে। তাই আপনি যখন এই ব্যবসা করবেন তখন বিভিন্ন মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানির কাছ থেকে সরাসরি সোডা ওয়াটার তৈরীর মেশিন কিনুন তাতে আপনি অনেক সুবিধা পাবেন। আপনি যে এলাকাতে বাস করেন সেই এলাকার কাছাকাছি বড় মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করুন এবং তাদের কাছ থেকে সরাসরি মেশিন কিনুন।

পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার আশেপাশে বেশ বড় বড় কিছু মেশিন ম্যানুফ্যাকচারার কোম্পানি রয়েছে যারা নিজেরা সোডা ওয়াটার তৈরির সব ধরনের মেশিন ম্যানুফ্যাকচার করে থাকে। আপনারা চাইলে এই সকল মেশিন বিক্রেতার কাছ থেকে মেশিন কিনতে পারেন। আবার অনলাইনে ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকে সব ধরনের মেশিন খুব অল্প দামে কিনে নিয়ে ব্যবসা করতে পারেন।

  • 102, garden city, pawan vihar colony, University road, Bareilly, 9557798358, 7248448834
  • Call for Order Today :📞 Toll Free 1800 313 7275 / 8686959292
  • Sales Executive Call / Whatsapp : +91 8822686868, Managing Director ( Mr. Shabbir ) : +91 9423185452 QC Dpt : +91 9405052152 Office : +91 257 2236952 257 2237052.

সোডা ওয়াটার প্লান্ট ব্যবসা করতে কত বড় জায়গা লাগে? (How much space is required to run a soda water plant business?)

সোডা ওয়াটার প্লান্ট ব্যবসা করার জন্য আপনাকে একটু বেশি বড় জায়গা নিয়ে কাজ শুরু করতে হবে। সোডা ওয়াটার তৈরীর মেশিন গুলির আয়তন ছোট ছোট হলেও তা একসঙ্গে রাখলে বেশ অনেকটা জায়গার প্রয়োজন পড়ে। তাই আপনি যখন সেটা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা শুরু করবেন এবং নিজে উদ্যোগে একটি সোডা ওয়াটার প্লান্ট তৈরি করবেন তখন কমপক্ষে 100 স্কয়ার ফিট থেকে 200 স্কয়ার ফিট জায়গা নিয়ে ব্যবসা করুন।

সোডা ওয়াটার তৈরি একটি কারখানা তৈরি করার জন্য অবশ্যই আপনাকে এমন একটি বড় জায়গা নির্বাচন করতে হবে যেখানে কাঁচামাল রাখা এবং তৈরি হওয়া প্রোডাক্ট বা সোডা ওয়াটার বোতল গুলি রাখার মতো পর্যাপ্ত জায়গা থাকে। এছাড়া ডেলিভারি গাড়ি গুলি সরাসরি যাতে কোম্পানির ভেতর প্রবেশ করতে পারে তার জন্যেও বেশ বড় জায়গার প্রয়োজন পড়বে এই ব্যবসা করতে। তবে আপনি যদি চান আপনার বাড়িতেই এরকম বড় জায়গা পেলে সেখানেই কোম্পানি তৈরি করে সহজেই ব্যবসা করতে পারেন। তবে খেয়াল করবেন তৈরি হওয়া প্রোডাক্ট বিক্রি করার জন্য ডেলিভারি গাড়িগুলি যেন মাল লোডিং আনলোডিং করার ব্যবস্থা থাকে।

আরো পড়ুন- গাড়ি ধোয়ার ব্যবসা করুন বিনা পুঁজিতে

কিভাবে সোডা ওয়াটার তৈরি হয়? (How is soda water made?)

সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করতে হলে অবশ্যই আপনাকে জানতে হবে সেটা ওয়াটার বানানোর পদ্ধতি সম্পর্কে। এমন সময় খুব সহজ নিয়মই মেশিন বসিয়ে সোডা ওয়াটার বানানো যায় তবুও সেই মেশিন পরিচালনা করা এবং সম্পূর্ণ পদ্ধতি জানা থাকলে আপনার এই কাজ করতে অনেক সুবিধা হবে। ব্যবসার শুরুর দিকে আপনি যেখান থেকে মেশিন কিনবেন সেখানেই তারা আপনাকে ট্রেনিং দিয়ে দেবে এই মেশিনগুলি পরিচালনা করার জন্য এবং সোডা ওয়াটার বানানোর সমস্ত পদ্ধতি শিখিয়ে দেবে। তবুও জেনে রাখুন সোডা ওয়াটার বানানোর পদ্ধতিগুলি হল-

  • চিলার মেশিনের ভেতর জল রাখতে হবে এবং তা 4 ডিগ্রী টেম্পারেচারে ঠান্ডা করতে হবে।
  • সিলেটের জল প্যানেলের মাধ্যমে কম্পোজার মেশিনের ভেতর আসে। বাইরে থাকা কার্বন-ডাই-অক্সাইড সিলিন্ডার থেকে কার্বন-ডাই-অক্সাইড গ্যাস সোডা কম্পোজার মেশিনের ভেতর প্রবেশ করে।
  • সোডা কম্পোজার মেশিনের ভেতর জল এবং কার্বন-ডাই-অক্সাইড ভালো করে মিশ্রণ তৈরি হয়।
  • প্রেসার মেশিনের সাহায্যে তৈরি হওয়া সোডা ওয়াটার পৌঁছে যায় সোডা ফিলিং মেশিনের ভেতর।
  • সোডা ওয়াটার ফিলিং মেশিনে সাহায্যে বোতল খুব সহজেই ভর্তি করা হয়।
  • সোডা ওয়াটার বোতল ভর্তি হয়ে গেলে তা সিল প্যাক করার জন্য ক্রাউন ক্যাপসিলিং মেশিন এর দ্বারা ঢাকনা লাগিয়ে ভালো করে সিল করে দেওয়া হয়।
  • বোতলের গায়ে সোডা ওয়াটারের স্টিকার বা লেবেল লাগিয়ে বাজারে বিক্রি করার জন্য প্রস্তুত করা হয়।

সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসায় কি কি লাইসেন্স লাগে? (Does the business of making soda water require a license?)

যেকোনো ব্যবসা করতে গেলে ব্যবসার জন্য একাধিক লাইসেন্স নিতে হয়। আর তাই আপনি যখন সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা শুরু করবেন তখনও আপনাকে ব্যবসার জন্য একাধিক লাইসেন্স নিতে হবে। যেহেতু সোডা ওয়াটার খাবার পানীয় হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাই এর জন্য ফুড দপ্তরের লাইসেন্স অবশ্যই নিতে হবে। এই ব্যবসা করার জন্য যে সকল লাইসেন্স গুলির প্রয়োজনীয়তা রয়েছে তা হল-

  • ট্রেড লাইসেন্স
  • FSSAI লাইসেন্স
  • উদ্যগ আধার রেজিস্ট্রেশন
  • GST রেজিস্ট্রেশন

ফাসাই লাইসেন্স এবং ট্রেড লাইসেন্স সহ বাকি সকল লাইসেন্স গুলি নিতে আপনার খরচ হবে দুই থেকে পাঁচ হাজার টাকার মধ্যে। এই সমস্ত লাইসেন্স আপনি চাইলে অনলাইনে আবেদন করে নিতে পারেন। আবার আপনার এলাকা অনুযায়ী আরো যদি লাইসেন্স নেওয়ার প্রয়োজনীয়তা থাকে তা জানার জন্য নিকটবর্তী পঞ্চায়েত ও বিডিও অফিসে যোগাযোগ করতে পারেন।

Soda water making
সোডা ওয়াটার

সোডা ওয়াটার ব্যবসায় মার্কেটিং কিভাবে করা হয়? (How is marketing done in a soda water business?)

সোডা ওয়াটার ব্যবসায় মার্কেটিং করার জন্য খুব বেশি ভাবনা-চিন্তার প্রয়োজন পড়ে না কারণ বর্তমান বাজারে এর চাহিদা অনেক বেশি পরিমাণে রয়েছে কিন্তু যোগান খুব বেশি নেই। তাই জন্য আপনি এই ব্যবসায় মার্কেটিংয়ের উপর একটু জোর দিলেই দ্রুততার সাথে সমস্ত সোডা বোতল বিক্রি হয়ে যাবে। তাই যে পদ্ধতিতে মার্কেটিং করলে সফলতা পাবেন তা হল-

  • আপনার এলাকার আশেপাশের ডিস্ট্রিবিউটর কে সোডা ওয়াটার বোতল বিক্রি করতে পারেন পাইকারি রেটে।
  • একাধিক সেলসম্যান নিযুক্ত করে এলাকার আশেপাশের সমস্ত মার্কেটে সোডা ওয়াটার বিক্রির ব্যবস্থা করতে পারেন।
  • বাজারের পাইকারি বিক্রেতাদের আপনি পাইকারি রেটে সোডা ওয়াটার বোতল বিক্রি করতে পারেন।
  • অনলাইনে নিজস্ব ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে সোডা ওয়াটার বিক্রি করা যেতে পারে।
  • সাধারণ বিক্রেতাদের সাথে যোগাযোগ করে তাদের নিজস্ব ব্র্যান্ডিং করার পরামর্শ দিয়ে বা তাদের ইচ্ছায় আপনার কোম্পানিতে তৈরি হওয়া বোতল তাদের ব্র্যান্ডে বিক্রি করতে পারেন।
  • অ্যামাজন ফ্লিপকার্ট ইন্ডিয়া মার্ট এর মতো ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলিতে সোডা ওয়াটার বোতল তৈরি করে বিক্রি করা যেতে পারে।
  • অনলাইনে ইউটিউব ফেসবুক এবং ইনস্টাগ্রামে অল্প টাকা খরচ করে বিজ্ঞাপন দেওয়া যেতে পারে। যেহেতু বর্তমান সময়ে মানুষ অনলাইনের ওপর বিশেষ নির্ভরশীল, তাই অনলাইনে ব্যবসার বিজ্ঞাপন দিলে দ্রুততার সাথে মানুষের কাছে পৌঁছানো যায়।

অবশ্যই পড়ুন- 1 হাজার টাকায় ভিনিগার তৈরির ব্যবসা করুন

সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে? (How much does it cost to start a soda water business?)

সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করতে একটু বেশি টাকা বিনিয়োগ করলে বড় আকারের ভালো সোডা প্লান্ট তৈরি করা যেতে পারে। সাধারণত সোডা ওয়াটার তৈরীর মেশিন গুলির দাম একটু বেশি হওয়ার জন্য বিনিয়োগের অর্থ বেড়ে যায়। আপনি যদি ছোট করে সোডা ওয়াটার প্লান্ট তৈরি করতে চান তাহলে কমপক্ষে 6 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে এই ব্যবসায়। আর আপনি যদি অনেক বড় আকারের সোডা ওয়াটার প্লান্ট তৈরি করেন সেক্ষেত্রে খরচ হবে কমপক্ষে 10 থেকে 15 লক্ষ টাকা।

তবে আরো ছোট করে শুরু করতে চাইলে সোডা ওয়াটারের মিনি মেশিন কিনে ব্যবসা করতে পারেন এক্ষেত্রে দুই থেকে তিন লাখ টাকা বিনিয়োগে ছোট আকারের সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসা করা যেতে পারে। ব্যবসার শুরুতে অল্প বিনিয়োগ করে ব্যবসাটি করলে আপনি মার্কেট চাহিদা এবং মার্কেট এনালাইসিস করতে পারবেন ভালো করে । পরবর্তী ক্ষেত্রে ব্যবসা বড় করার জন্য যা আপনাকে অনেক সাহায্য করবে।

সোডা ওয়াটার তৈরির ব্যবসায় লাভ কত? (How much is the profit in the business of making soda water?)

সোডা ওয়াটার তৈরীর ব্যবসায় যেমন বিনিয়োগ করতে হয় অনেক টাকা তেমনি এই ব্যবসায় লাভ হতে পারে অনেক বেশি পরিমাণে। দুই টাকা করে প্রতি বোতল কিনতে পাবেন পাইকারি রেটে। একটা বোতলে সোডা ওয়াটার ভর্তি করে কমপ্লিট করতে খরচ হবে 4 টাকা। সেই বোতলটি পাইকারি মার্কেটে বিক্রি করতে পারবেন 10 টাকা দামে। প্রতিদিন একটি মেশিন থেকে 3600 লিটার সোডা ওয়াটার তৈরি করা যায়।

প্রতিদিনের তৈরি করা সোডা ওয়াটার বাজারে বিক্রি করতে পারলে প্রতিদিন 5000 টাকার বেশি আয় করা সম্ভব। সাধারণত সোডা ওয়াটার তৈরীর ব্যবসায়ী প্রতিমাসের আয় 2 থেকে 4 লক্ষ টাকাও হতে পারে। আপনি কিভাবে ব্যবসা করছেন এবং কিভাবে মার্কেটিং করছেন তার ওপরে নির্ভর করবে আপনার ব্যবসার লাভের পরিমাণটা তাই ব্যবসাটি মনোযোগ সহকারে করুন ভালো করে মার্কেট এনালাইসিস করে প্রচুর মার্কেটে আপনার মাল পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করুন।

জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন ও FAQ

সোডা ওয়াটার এর সংকেত কি?

উত্তর: সোডা ওয়াটার সংকেত হল NaOH (সোডিয়াম হাইড্রোক্লোরাইড)।

সোডা ওয়াটার কাকে বলে?

উত্তর: জলে মিশ্রিত কার্বন ডাই অক্সাইডের দ্রবণকে সোডা ওয়াটার বলা হয়।

সোডা জল খাওয়ার উপকারিতা কি?

উত্তর: হজমে সক্রিয়তা, শরীরের আর্দ্রতা বৃদ্ধি, ওজন ক্ষমতা বাড়ানো, দেহের ph বাড়ানো, হরমোন ক্ষমতা বাড়ানো, এছাড়াও আরো অনেক শারীরিক উপকারে সোডা ওয়াটারের ব্যবহার হয়ে থাকে।

সোডা ওয়াটার এ কি থাকে?

উত্তর: সোডা ওয়াটারে তিন ধরনের এসিড পাওয়া যায় যা হল-ক্রিকেট কার্বনিক অ্যাসিড, ফসফরিক অ্যাসিড, কার্বন-ডাই-অক্সাইড।

সোডা পানি খাওয়ার নিয়ম কি কি?

উত্তর: সাধারণ খাবার পানীয় সাথে এক চা চামচ করে সোডা পানি প্রতিদিন খেলে শরীরে অনেক রকম রোগ নিরাময় ঘটতে পারে।

সোডা ওয়াটার ব্যবসায় বিনিয়োগ কত লাগে?

উত্তর: 5-6 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করলে সোডা ওয়াটার প্লান্ট তৈরি করতে সুবিধা হয়।

সোডা ওয়াটার ব্যবসায় লাভ কত?

উত্তর: প্রতিদিন কমপক্ষে 5 হাজার টাকা করে আয় করা সম্ভব সোডা ওয়াটার ব্যবসায়

নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

পানের ব্যবসা করুন

পেপার কাপ তৈরির ব্যবসা

Leave a Comment