সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করুন অল্প টাকায় | Safety pin making business 50 thousand Rs, right now

বর্তমান সময়ে অল্প টাকার ব্যবসার মধ্যে সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা খুবই জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। আপনি যদি ব্যবসা করে সফলতা অর্জন করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে সেফটি পিন তৈরির পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে হবে। বর্তমান সময়ে মাত্র এক রকমের কাঁচামাল কিনে আপনি এই ব্যবসা করে প্রতি মাসে কয়েক হাজার টাকা ইনকাম করতে পারেন। চলুন দেখে নেওয়া যাক সেফটিপিন তৈরির পদ্ধতি এবং এই ব্যবসা করার সকল নিয়মাবলী গুলি।

Table of Contents

কিভাবে সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করা যায়? (How to make safety pin business?)

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে বেশ কয়েকটি মেশিন কিনতে হবে এবং প্রয়োজনীয় কাঁচামাল হিসেবে সরু লোহার তার কিনতে হবে। এরপর আপনাকে দেখতে হবে বর্তমান মার্কেট চাহিদা কেমন রয়েছে এবং কোন ডিজাইনের সেফটি পিনের চাহিদা বেশি রয়েছে। তারপর এই ব্যবসা করার জন্য আপনাকে মার্কেটিং এর একটি ছেলে রাখতে হবে। আপনি খুব সহজেই এই ব্যবসা করে অনেক টাকা উপার্জন করতে পারবেন অভিজ্ঞতা এবং ধৈর্যের সাথে।

অবশ্যই পড়ুন- পেরেক তৈরির ব্যবসা

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে কি কি কাঁচামাল লাগে? (What are the raw materials needed to make safetypins?)

সেপটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে গেলে প্রধান কাঁচামাল হিসেবে আপনাকে যেটি কিনতে হবে তা হল সরু লোহার তার । এছাড়াও এই ব্যবসাতে আরব এক ধরনের কাঁচামাল ব্যবহার করা হয় তা পেতল অথবা তামার সরু তার। বর্তমান সময়ে বেশি প্রচলিত সেফটিপিন গুলি মূলত লোহার সরু তারেই তৈরি করা হয়। তবে অনেকে তামার তার অথবা পিতলের সরু তার ব্যবহার করে।

  • সরু লোহার তার
  • সরু তামার তার
  • লোহার ও তামার পাতলা পাত
Safety Pin Making Machine
সেফটিপিন তৈরির মেশিন

সেপটিপিন তৈরির কাঁচামাল কোথাও কিনতে পাওয়া যায়?

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে যেসব কাঁচামাল আপনাকে কিনতে হবে তা আপনি পেয়ে যাবেন আপনার নিকটবর্তী বড় পাইকারি বাজার এবং যেখান থেকে মেশিন কিনবেন সেই মেশিনারি দোকান থেকে। এছাড়াও সরু লোহার তার কেনার জন্য আপনি সরাসরি তারের ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানি থেকে একসাথে অনেকটা পরিমাণে তার কিনে ব্যবসা করতে পারেন। তবে কলকাতার বড়বাজার এবং বাংলাদেশের চকবাজার থেকে খুব সহজেই আপনি সরু লোহার তার কিনে ব্যবসা করতে পারবেন। সেপটিপিন তৈরি করার জন্য এই সকল কাঁচামাল কিনে কাজ করতে পারবেন।

সেফটিপিন তৈরির মেশিনের দাম কত? (How much does a safety pin making machine cost?)

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসার সব থেকে প্রধান উপকরণটি হল সেফটিপিন তৈরির মেশিন। আর এই সেপটিপিন তৈরির মেশিন বিভিন্ন দামে বিক্রি হয় সাধারণ মেশিনারি দোকানে। বর্তমানে এই মেশিনের দাম বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে।
সেফটিপিন তৈরির মেশিনের দাম 50-60 হাজার টাকার মধ্যে আপনি খুব ভালোভাবেই পেয়ে যাবেন। বর্তমানে যদিও এই মেশিন সেকেন্ড হ্যান্ড কিনতে পাওয়া যায় । আর সেকেন্ড হ্যান্ড সেফটিপিন তৈরীর মেশিন এর দাম 25 থেকে 30 হাজার টাকার মধ্যে হয়ে থাকে।

সেফটিপিন তৈরির মেশিন কোথায় কিনতে পাওয়া যায়? (Where to buy safetypin making machine?)

বর্তমান সময়ে আপনি যদি সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা শুরু করতে চান এবং সেই সেফটিপিনের মেশিন কিনতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে বড় কোন মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করতে হবে। কলকাতার একাধিক বড় মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানি সেপটেপিন বানানোর মেশিন বিক্রি করে। এছাড়াও আপনার এলাকাতে যদি পেরেক তৈরি ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানি বা মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানি থেকে থাকে তাহলে তাদের সাথে যোগাযোগ করেও আপনি সেফটিপিন বানানোর মেশিন পেয়ে যাবেন। আপনাদের সুবিধার্থে বেশ কিছু যোগাযোগ নাম্বার নিচে দেওয়া হল। এই মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানিগুলির সাথে যোগাযোগ করে আপনি মেশিন কিনতে পারবেন। এছাড়াও বর্তমানে ইন্ডিয়া মার্ট ওয়েবসাইট থেকে প্রায় সকল ধরনের মেশিন কেনা যায়। তাই আপনি চাইলে ইন্ডিয়া মার্ট ওয়েবসাইট থেকে মেশিন কিনে ব্যবসা করতে পারবেন।

  • +8801746-222768
  • +91 9804 3340 20 / +91 7439 188 303

আরো পড়ুন- জেমস ক্লিপ তৈরির ব্যবসা

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে কত বড় জায়গা লাগে?

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করার জন্য আপনাকে কমপক্ষে 100 স্কয়ার ফিট জায়গা অথবা 10/20 জায়গাতে একটি ছোট আকারের কারখানা তৈরি করে ব্যবসা করতে হবে। বর্তমানে প্রায়ই সকল সেফটিপিন তৈরি কোম্পানিগুলি কমপক্ষে 100 স্কয়ার ফিটের বেশি জায়গাতে তাদের কারখানা তৈরি করে কাজ করছে। আবার অনেক পেরেক তৈরীর কোম্পানি তাদের কারখানার ভেতরেই সেফটিপিন তৈরির মেশিন বসিয়েছে টিফিন তৈরির ব্যবসা করছেন।

কিভাবে সেফটিপিন তৈরি হয়? (How are safetypins made?)

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে হলে অবশ্যই আপনাকে জানতে হবে সেফটিপিন কিভাবে তৈরি করা হয়। খুব সহজেই মেশিনের সাহায্যে সেফটি পিন বানানো হয়ে থাকে তবে তা শেখার জন্য আপনাকে আলাদা করে কোন ট্রেনিং নেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না আপনি যেখান থেকে মেশিন কিনবেন সেখান থেকেই আপনাকে ট্রেনিং দিয়ে দেবে। তবুও আপনাদের জানার অর্থে সেফটিপিন তৈরির পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

  • লোহার তারের বান্ডিল একটি ছোট রোলিং মেশিনের ভেতর রেখে দিতে হবে।
  • তারের একটি অংশ মেশিনের সাথে যুক্ত করে মেশিন চালিয়ে দিলে খুব সহজেই সেপটিপিন এর আকারে তার টি রোল করে কেটে অন্য প্রান্তে চলে যাবে।
  • পাতলা লোহার পাত কাটিং হয়ে অটোমেটিক ভাবে মেশিনের সাহায্যে সেফটিপিন এর মাথার অংশে ভালো করে আটকে সেফটিপিন তৈরি করবে।
  • তৈরি হওয়া সেফটিপিন মেশিনের এক প্রান্ত দিয়ে বেরিয়ে আসবে।
  • তৈরি হওয়া সেফটিপিন গুলিকে 10টি করে নিয়ে একটি একটি প্যাকেটের ভেতর ভরে বাজারে বিক্রি করার জন্য প্রস্তুত করতে হবে।

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসায় কি কি লাইসেন্স লাগে?

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে বেশ কয়েক ধরনের লাইসেন্স নিয়ে এই ব্যবসায় নামতে হবে। বর্তমানে প্রায় সব ধরনের ব্যবসার জন্য আলাদা আলাদা লাইসেন্সের প্রয়োজন পড়ে আর তাই সব ব্যবসায়ীরাই তাদের ব্যবসার জন্য লাইসেন্স নিয়ে কাজ শুরু করেন। আপনাকেও এই ব্যবসার জন্য যে সকল লাইসেন্স নিতে হবে তা হল-

  • ট্রেড লাইসেন্স
  • GST নাম্বার
  • কমার্শিয়াল ইলেকট্রিক লাইসেন্স
  • উদ্যোগ আধার রেজিস্ট্রেশন
  • ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার
  • নাগরিকত্বের প্রমাণপত্র

এই সকল প্রকার লাইসেন্স নেবার জন্য আপনি আপনার নিকটবর্তী পঞ্চায়েত অফিস এবং বিডিও অফিসে যোগাযোগ করতে পারেন। তবে বর্তমান সময়ে অনলাইনে আবেদন করে প্রায় সব ধরনের লাইসেন্সই পাওয়া যায়। তাই আপনিও চাইলে অনলাইনে আবেদন করে সব রকম লাইসেন্স নিয়ে ব্যবসা করতে পারেন। এই সমস্ত লাইসেন্স নেবার জন্য আপনার খরচ হবে দুই থেকে তিন হাজার টাকার মত।

অবশ্যই পড়ুন- মুড়ি ভাজার ব্যবসা করে প্রতিদিন 3000 টাকা আয়

সেফটিপিনের মার্কেটিং কিভাবে করবেন?

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করার পরে আপনাকে অবশ্যই তৈরি হওয়া সেফটিপিন বাজারে বিক্রি করার জন্য ভালোভাবে মার্কেটিং করতে হবে। আপনি যত ভালোভাবে এবং যত উন্নত পদ্ধতিতে মার্কেটিং করবেন তত বেশি দ্রুত আপনার ব্যবসার উন্নতি ঘটবে। তাই যে পদ্ধতিতে মার্কেটিং করলে আপনার ব্যবসায় সফলতা দ্রুততার সাথে আসতে পারে তা হল-

  • আপনার এলাকার ছোট বড় সকল প্রকার দোকানে আপনি সেফটিপিন বিক্রি করতে পারেন।
  • বড় বড় পাইকারি দোকানে সেপটিপিন পাইকারি দামে বিক্রি করা যেতে পারে।
  • সেফটিপিন বিক্রি করার জন্য আপনার এলাকার বড় পাইকারি বাজার অথবা কলকাতার বড় বাজারের মতো বড় পাইকারি বাজারে আপনি সেফটিপিন বিক্রি করতে পারেন।
  • নিজস্ব ওয়েবসাইট তৈরি করে সেই ওয়েবসাইট সেফটিপিন বিক্রি করা যেতে পারে।
  • অ্যামাজন ফ্লিপকার্ট এর মতো ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলিতে নিজস্ব বিজনেস অ্যাকাউন্ট খুলে সেখানে অনলাইনে ব্যবসা করতে পারেন।
  • ইন্ডিয়া মার্ট ওয়েবসাইটে অ্যাকাউন্ট খুলে আপনি সেখানে বিক্রি করতে পারেন তৈরি করা সেফটিপিন গুলি।
  • বিভিন্ন এলাকাতে একাধিক ডিস্ট্রিবিউটার তৈরি করে তাদের মারফত সেফটিপিন বিক্রি করা যেতে পারে।
  • বিভিন্ন এলাকাতে একাধিক সেলসম্যান নিযুক্ত করে তাদের দিয়ে সেফটিপিন এর বিক্রি বাড়াতে পারেন।
  • গুগল, ফেসবুক, ইউটিউব এ অল্প টাকা বিনিয়োগ করে অনলাইনেই বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।
সেফটিপিন তৈরি
Safety Pin Making

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে? (How much money does it cost to start a safetypin making business?)

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করার জন্য অল্প টাকা বিনিয়োগ করে এই ব্যবসা করা যায়। বর্তমান সময়ে সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা কমপক্ষে 50 হাজার টাকা বিনিয়োগ করে আপনি শুরু করতে পারবেন। তবে ভালো করে একটি কোম্পানি তৈরি করা এবং মার্কেটিং এর জন্য খরচ হিসেবে যদি আপনি আরো টাকা ইনভেস্ট করতে চান তাহলে কমপক্ষে 85 হাজার থেকে 1 লক্ষ টাকা বিনিয়োগে এই ব্যবসা বড় আকারের শুরু করতে পারবেন। তবে ব্যবসার শুরুর দিকে অত বেশি টাকা বিনিয়োগ না করে অল্প বিনিয়োগ করেই ব্যবসাটি ছোট আকারের শুরু করুন। ব্যবসা করতে করতে আপনার অভিজ্ঞতা এবং পর্যাপ্ত পরিমাণের মার্কেট ধরার পরেই আপনি বেশি বিনিয়োগ করে ব্যবসাটিকে বড় করে তুলুন।

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসায় লাভ কত? (How profitable is the business of making safety pins?)

সেপটিপিন তৈরির ব্যবসায় লাভ অনেক বেশি পরিমাণে হয়ে থাকে কারণ এটি তৈরি করতে যে টাকা বিনিয়োগ করবেন তার চার গুণ টাকা বিক্রি করে লাভ করতে পারেন। বর্তমানে একটি সেফটি পিন তৈরি করতে আপনার খরচ হবে 12 পয়সা। আর এক পাতা সেফটিপিন তৈরি করতে আপনার খরচ হবে 2 টাকা। তৈরি হওয়া সেফটিপিন বাজারে বিক্রি করতে পারবেন পাইকারি দরে 4 থেকে 6 টাকায়। তাই সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করে প্রতি মাসে আপনি কমপক্ষে 30 হাজার টাকা থেকে 70 হাজার টাকা আয় করতে পারেন। আপনি যদি একটু বড় করে ব্যবসাটি করতে চান তাহলে এই ব্যবসা থেকে আপনি প্রতি মাসে 1.5 লক্ষ টাকারও বেশি লাভ করতে পারবেন।

জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন ও FAQ

সেফটিপিন তৈরির ব্যবসায় কত টাকা বিনিয়োগ লাগে?

উত্তর: 50 হাজার টাকা থেকে 1 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করলে ভালোভাবে বড় আকারের সেফটিপিন তৈরির ব্যবসা করা যায়।

সেফটিপিন তৈরীর মেশিন চালাতে কি ধরনের ইলেকট্রিক লাগে?

উত্তর: ছোট মোটরের মেশিনগুলি টু টোয়েন্টি ভোল্টে চলে বড় আকারের মোটরগুলি 440 ভোল্টে চলে।

সেপটিপিন তৈরির ব্যবসা কোথায় করা যায়?

উত্তর: গ্রাম ও শহরের যে কোন জায়গাতেই সেপটিপিন তৈরির ব্যবসা করতে পারবেন।

সেফটি পিন কি দিয়ে তৈরি হয়?

উত্তর: লোহা ও তামা ২ ধাতু দিয়েই সেফটিপিন তৈরি হয়।

সেফটিপিন ব্যবসায় লাভ কত?

উত্তর: মাসে 30 হাজার টাকা থেকে 50 হাজার টাকা লাভ থাকে ছোট ব্যবসায়ীদের

নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

সুপারি চাষ করে লাখ টাকা আয়

আলুর পাইকারি ব্যবসা করুন

Leave a Comment