সাবান তৈরির ব্যবসা করে মাসে 1 লক্ষ টাকার বেশি আয় | Soap making business right now

বর্তমানে প্রায় সব বাড়িতেই সাবানের ব্যবহার রয়েছে। তাই সাবান তৈরির ব্যবসা দিনে দিনে ফুলেফে উঠছে। আপনিও যদি নিজে উদ্যোগে এই ব্যবসা করতে চান এবং করবেন বলে ভাবেন তাহলে আজকের এই পোস্টটি আপনারই জন্য। মাত্র 3-4 টাকা দিয়ে সাবান তৈরি করে বাজারে 15-20 টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খুব অল্প টাকায় সাবান তৈরি করতে লাগে কিন্তু বাজারে বিক্রি করা যায় অনেক বেশি টাকায়। যেহেতু প্রতিটি পরিবারে নিত্য ব্যবহৃত হচ্ছে সাবান তাই এর ব্যবসা ও অনেক লাভ যুক্ত ব্যবসা। আজ সাবান তৈরির ব্যবসা সম্বন্ধিত যাবতীয় তথ্য নিয়ে প্রস্তুত এই পোস্ট সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়লে আপনি নিজে উদ্যোগে শুরু করতে পারবেন আপনার এলাকাতে সাবান তৈরির ব্যবসা।

Table of Contents

কিভাবে সাবান তৈরির ব্যবসা শুরু করা যায়? (How to start a soap making business?)

বর্তমান বাজারে সাবানের প্রচুর চাহিদা থাকার জন্য বড় বড় সাবান কোম্পানিগুলি প্রচুর লাভবান হচ্ছে। তবে বর্তমানে সাবান তৈরির ব্যবসাতে এখনো পর্যন্ত খুব বেশি কম্পিটিশন নেই, তাই জন্য আপনি যদি আপনার এলাকাতে শুরু করতে পারেন এই ব্যবসা তাহলে অবশ্যই আপনি সফলতা পাবেন। সাবান তৈরির ব্যবসা করার জন্য নূন্যতম একটি কারখানার মত জায়গা এবং প্রয়োজনীয় মেশিনারি ও উপযুক্ত ট্রেনিং প্রাপ্ত শ্রমিক হলেই আপনি খুব ভালোভাবে ব্যবসা করতে পারবেন। বর্তমানে সাবান তৈরির মেশিনগুলি বিভিন্ন দামে বিক্রি হয় তাই পছন্দ মত ভালো কোয়ালিটির মেশিন কিনে আপনি খুব সহজেই ব্যবসা করতে পারেন। এই ব্যবসার প্রয়োজনীয় ট্রেনিং আপনি পেয়ে যাবেন যেখান থেকে মেশিন কিনবেন সেখানে। তবুও আপনাদের সুবিধার্থে সাবান তৈরীর পদ্ধতিগুলি নিচে আলোচনা করা হবে।

অবশ্যই পড়ুন- লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশ তৈরি ব্যবসা

সাবান তৈরির ব্যবসায় কি কি কাঁচামাল লাগে? (What raw materials are required in the soap making business?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে প্রয়োজনীয় কাঁচামাল যেগুলি লাগে তা খুবই সহজলভ্য। আর এই ব্যবসার জন্য প্রয়োজনীয় কাঁচামাল গুলি সম্পর্কে আপনার জানার অনেক প্রয়োজন রয়েছে। সাবান তৈরির কাঁচামাল গুলি হল-

  • সানফ্লাওয়ার অয়েল
  • পাম ওয়েল
  • নারকেল তেল
  • কস্টিক সোডা
  • (শোপ নোডেলস)
  • সুগন্ধি
  • সাবান তৈরীর কালার
  • শোপ স্টোন পাউডার

সাবান তৈরির কাঁচামাল কোথায় কিনতে পাওয়া যায়? (Where to buy raw materials for soap making?)

সাবান তৈরির ব্যবসায়ী যেসব প্রয়োজনীয় কাঁচামাল গুলি লাগে তা কিনতে পাবেন আপনার এলাকার যে কোন বড় পাইকারি মার্কেট থেকে। অথবা আপনি যেখান থেকে মেশিন কিনবেন সেখানেই পেয়ে যাবেন সকল প্রকার সাবান তৈরির কাঁচামাল। বর্তমানে সাবান তৈরির প্রধান কাঁচামাল শোপ নোডেলস ও শোপ স্টোন পাউডার কেনার জন্য আপনাকে কলকাতার বড় বাজার অথবা ঢাকার চকবাজারে যোগাযোগ করতে হবে। এছাড়াও আপনি ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকে সমস্ত কাঁচামাল একসাথে অনেকটা পরিমাণে কিনে নিয়ে ব্যবসা করতে পারেন। তবে আপনি যদি ভাবেন সকল প্রকার কাঁচামাল কিনে নিজে শোপ নোডেলস তৈরি করে সাবান তৈরি করবেন তাহলেও তা করতে পারেন। তবে সাবান তৈরীর সব কাঁচামাল কম দামে কিনতে আপনাকে অবশ্যই বড় কোনো পাইকারি বাজারে সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

সাবান তৈরির ব্যবসা
Soap making business

সাবান তৈরির ব্যবসায় কি কি মেশিন লাগে? (What machines are needed in the soap making business?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে অবশ্যই বেশ কয়েক ধরনের মেশিন কিনতে হবে। বর্তমানে একটি সাবান তৈরির কারখানাতে কমপক্ষে 6 সেটের মেশিন থাকে। আর সেই মেশিনগুলি হলো-

  • মিক্সার মেশিন
  • মিলার মেশিন
  • শোপ কোডার মেশিন
  • কাটিং মেশিন
  • স্টাম্পিং মেশিন
  • প্যাকেজিং মেশিন

সাবান তৈরির মেশিন এর দাম কত? (How much does a soap making machine cost?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে অবশ্যই আপনাকে সাবান তৈরির মেশিন কিনতে হবে। বর্তমান সময়ে সাবান তৈরির মেশিন গুলি বিভিন্ন কোম্পানি নানা রেটে বিক্রি করে। তবে আপনাকে এই ব্যবসা করার জন্য ভালো কোয়ালিটির উপযুক্ত মেশিন কিনে ব্যবসা করতে হবে। বর্তমানে সাবান তৈরির মেশিন গুলির দাম হল-

মেশিনদাম
মিক্সার মেশিন50-60 হাজার টাকা
মিলার মেশিন60-80 হাজার টাকা
শোপ কোডার মেশিন1-1.5 লক্ষ টাকা
কাটিং মেশিন10-15 হাজার টাকা
স্টাম্পিং মেশিন30-50 হাজার টাকা
প্যাকেজিং মেশিন1.5- 2 লক্ষ টাকা

সাবান তৈরির মেশিন কোথায় কিনতে পাওয়া যায়? (Where to buy soap making machine?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে যেসব মেশিনগুলি আপনাকে কিনতে হবে তা পেয়ে যাবেন আপনার এলাকার বড় মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানির কাছে। যদি আপনার এলাকার বড় মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানির কাছে মেশিন না পান তাহলে আপনার এলাকার শহরের মেশিন বিক্রেতার কাছ থেকে তা কিনতে পারবেন। বর্তমানে কলকাতার একাধিক মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানি অর্ডার করলে সাবান তৈরীর মেশিন তৈরি করে দেবে। আবার বেশ কিছু কোম্পানি আছে যারা সাবান তৈরীর মেশিন বিক্রি করে।

আপনাদের সুবিধার্থে এমন বেশ কিছু মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানির যোগাযোগ নাম্বার ঠিকানা নিচে দেওয়া হল আপনারা চাইলে যোগাযোগ করে তাদের কাছ থেকে মেশিন কিনে ব্যবসা করতে পারবেন। বর্তমান সময়ে যদি আপনি অনলাইন থেকে মেশিন কিনবেন ভাবেন তাহলে ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকে মেশিন কিনে ব্যবসা করতে পারবেন। তবে অনলাইন থেকে মেশিন কেনার পরিবর্তে সরাসরি মেশিন ম্যানুফ্যাকচার কোম্পানির কাছ থেকে মেশিন কিনলে যেমন আপনি কম দামে মেশিন পাবেন, তেমন মেশিন যদি কখনো খারাপ হয় তা সারানোর ক্ষেত্রেও সেই কোম্পানি অনেক সাহায্য করবে আপনাকে।

  • সাবান তৈরির মেশিন Contact: +8801717392933. জয় বাংলা মেশিনারি
  • Jogi Engineering Industries Bengaluru, Karnataka Mob:- 8048429287
  • Sevitsil Mehsana, Gujarat Mob:- 8048720025

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে কত বড় জায়গার প্রয়োজন? (How much space is needed to make soap?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে একটু বেশি বড় জায়গার প্রয়োজন পড়বে। কারণ সাবান তৈরি করার যে একাধিক ছটি মেশিন নিয়ে আপনি ব্যবসা করবেন তাদের নির্দিষ্ট আয়তন এবং কাঁচামাল রাখার জায়গা ও তৈরি হওয়া প্রোডাক্টগুলি রাখার মত ন্যূনতম বড় জায়গার প্রয়োজন পড়ে। তাই আপনি যখন সাবান তৈরীর ব্যবসা শুরু করবেন তখন কমপক্ষে 1হাজার স্কয়ার ফুট জায়গাতে ব্যবসাটি শুরু করুন। এই জায়গাতে একটি বড়সড় ফাকা কারখানার মতো আকৃতি দিয়ে বাড়ি তৈরি করুন এবং সেখানে মেশিন বসিয়ে কাজ করুন।

তবে সাবান তৈরির ব্যবসা ছোট জায়গাতে যেমন হয় না তেমন এই ব্যবসার গ্রামাঞ্চলের ভেতরে পড়াও উপযুক্ত নয়। এই ব্যবসা করার জন্য রাস্তার ধারে একটি কারখানা তৈরি করলে তবেই ব্যবসাটি ভালো করে বড় আকারের করা সম্ভব। কারণ গাড়ি লোডিং আনলোডিং করার মতো ন্যূনতম যাতায়াত ব্যবস্থার প্রয়োজন রয়েছে এই ব্যবসা করতে।

আরো পড়ুন- ডিটারজেন্ট পাউডার তৈরির ব্যবসা

কিভাবে সাবান তৈরি হয়? (How is soap made?)

যেকোনো ধরনের সাবান তৈরির ব্যবসা করতে আপনাকে জানতে হবে সাবান তৈরীর সাধারণ পদ্ধতি সম্পর্কে। তাই আজ সাবান তৈরি করার পদ্ধতি সম্পর্কে জানানোর জন্য এখানে আলোচনা করা হলো।

  • সানফ্লাওয়ার অয়েল, পাম্প অয়েল, নারকেল তেল, কস্টিক সোডা ও আরো কিছু এসিড দিয়ে তৈরি করা হয় শোপ নুডলস। চাইলে সরাসরি বাজার থেকে শোপ নুডলস কাঁচামাল হিসেবে কিনে আনা যায়।
  • মিক্সার মেশিনে 50 কেজি শোপ নুডলস 1.5 কেজি শোপ স্টোন পাউডার ভালো করে মেশানো হয়।
  • মিশ্রণটি তৈরি হয়ে গেলে 600 গ্রাম পারফিউম দিয়ে ভালো করে আবার মেশানো হয়।
  • আবার মিশ্রণটি তৈরি হয়ে যাবার পর সাবান তৈরির কালার দিয়ে মিশ্রণটিকে আবার মেশানো হয় মিক্সার মেশিনের সাহায্যে।
  • সম্পূর্ণ মিশ্রণটি তৈরি হয়ে যাবার পর মিলার মেশিনের মধ্য ধীরে ধীরে ঢেলে দেওয়া হয়। মিলার মেশিন মিশ্রণটিকে পাতলা আকারের পেশাই করতে থাকে।
  • ভালো করে পিসাই হয়ে গেলে সাবানের প্রধান মিশ্রণ তৈরি হয়ে যায়।
  • সমস্ত সাবানের মিশ্রণটি শোপ কোডার মেশিনের মধ্য ঢেলে দিলে লম্বা হয়ে বেরিয়ে আসে সাবান।
  • লম্বা হওয়া সাবান গুলিকে নির্দিষ্ট আকৃতি দেওয়ার জন্য কাটিং মেশিনে কাটা হয়।
  • কাটা সাবান গুলিকে সুন্দর আকৃতি দেওয়ার জন্য এবং কোম্পানির লোগো লাগানোর জন্য স্টাম্পিং মেশিন এর মধ্য লাগানো হয়।
  • স্টাম্পিং মেশিনের সাহায্যে প্রেস করে সাবানকে সুন্দর আকৃতি দেওয়া হয়।
  • তৈরি হওয়া সাবান প্যাকেজিং মেশিনের সাহায্যে সুন্দর করে প্যাকেজিং হয়ে বাইরে বেরিয়ে আসে।
  • এইবার এই শাবানু গুলিকে নির্দিষ্ট সংখ্যায় কার্টুনের ভেতর ভর্তি করে বাজারে বিক্রি করার জন্য প্রস্তুত করা হয়।
  • এই একই পদ্ধতিতে গায়ে মাখার সুগন্ধি সাবান, বাসন মাজা সাবান, ও আরো সব ধরনের সাবানই তৈরি করা যায়।

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে কি কি লাইসেন্স লাগে? (What license is required to make soap?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করার জন্য আপনাকে বেশ কয়েকটি লাইসেন্স নিতে হবে আপনার এলাকার নিয়ম অনুযায়ী। অর্থাৎ বিভিন্ন রাজ্যে ব্যবসার জন্য বিভিন্ন ধরনের লাইসেন্সের নিয়ম রয়েছে। তাই আপনাকে আগে জানতে হবে আপনার নিকটবর্তী পঞ্চায়েত অফিস ও ভিডিও অফিসে গিয়ে আপনার ব্যবসার প্রয়োজনীয় লাইসেন্স সম্পর্কে। বর্তমান সময়ে সাবান তৈরির ব্যবসার জন্য প্রয়োজনীয় লাইসেন্সগুলি হল-

  • ট্রেড লাইসেন্স
  • GST নাম্বার
  • উদ্যগ আধার রেজিস্ট্রেশন
  • ট্রেডমার্ক
  • সেন্ট্রাল পলিউশন কন্ট্রোল বোর্ডের NOC
  • TIN সার্টিফিকেট (বাংলাদেশে প্রযোজ্য)
  • BIST লাইসেন্স (বাংলাদেশে প্রযোজ্য)
  • কারেন্ট ব্যাংক একাউন্ট
  • নাগরিকত্বের প্রমাণপত্র
  • কারখানা রেজিস্ট্রেশন লাইসেন্স

এই সমস্ত লাইসেন্স নেবার জন্য আপনি নিকটবর্তী বিডিও অফিস এবং কর্পোরেশনে যোগাযোগ করতে পারেন। তবে বর্তমান সময়ে অনলাইনে আবেদন করে বেশ কয়েক ধরনের লাইসেন্স পাওয়া যায়। তাই আপনি অনলাইনে সকল প্রকার লাইসেন্সের জন্য আবেদন করতে পারেন। সমস্ত লাইসেন্স বর্তমানে আপনি পেয়ে যাবেন 10 থেকে 15 হাজার টাকা খরচ করে।

Soap making machine
সাবান তৈরির মেশিন

সাবানের মার্কেটিং কিভাবে করবেন? (How to do soap marketing?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করার পরে তৈরি করা সাবান বাজারে বিক্রি করার জন্য আপনাকে বেশ ভালোভাবে মার্কেটিং করতে হবে। বর্তমান সময়ে বড় বড় নামিদামি কোম্পানিগুলি তাদের তৈরি করা সাবান বাজারের সর্বত্র বিক্রি করার কারণে আপনার ব্যবসায় ভালোভাবে মার্কেটিং করার প্রয়োজন রয়েছে। তাই বর্তমান সময়ে আপনি সাবান তৈরীর ব্যবসাতে মার্কেটিং করে সফলতা অর্জন করার জন্য যে পদ্ধতিগুলি ব্যবহার করতে পারেন তা হল-

  • তৈরি হওয়া সাবান আপনার এলাকার সমস্ত রিটেলারের কাছে 1-2 জন মার্কেটিং এর ছেলে নিয়োগ করে বিক্রি করতে পারেন।
  • আপনার এলাকার ও আশেপাশের এলাকার বড় বড় পাইকারি দোকানগুলিতে পাইকারি রেটে সাবান বিক্রি করতে পারেন।
  • শহরের বড় পাইকারি বাজার যেমন বড়বাজার ও চক বাজারে আপনি পাইকারি দামে সাবান বিক্রি করতে পারেন।
  • বিভিন্ন জেলা ও রাজ্যের একাধিক ডিস্ট্রিবিউটার তৈরি করে তাদের মারফত সাবানের বিক্রি বাড়িয়ে তুলতে পারেন।
  • অনলাইনে নিজস্ব ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে বিভিন্ন ধরনের সাবান বিক্রি করতে পারেন।
  • আমাজন ফ্লিপকার্ট এই ধরনের ই কমার্স ওয়েবসাইটগুলিতে বিজনেস অ্যাকাউন্ট তৈরি করে আপনার কোম্পানিতে তৈরি হওয়া সাবানের ছবি ও ফটো আপলোড করে সেখানে সাবান বিক্রি করতে পারেন।
  • ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইটে বি টু বি নিয়মে সরাসরি অনেক পরিমানের সাবান বিক্রি করতে পারেন।
  • সাবানের বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য গুগল, ফেসবুক, ইউটিউব এ অল্প টাকা খরচ করে অ্যাডভার্টাইজমেন্ট দিতে পারেন।
  • আপনার কোম্পানি তৈরি হওয়া সাবান সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছানোর জন্য বিভিন্ন এলাকাতে ছোট বড় ব্যানার ছাপিয়ে বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।
  • আপনার কোম্পানির তৈরি করা সাবান রিটেলার না বিক্রি করার আগে তাদের দোকানে সাবানের স্টিকার লাগিয়ে বিজ্ঞাপন দেওয়া যেতে পারে।

অবশ্যই পড়ুন- ডিসওয়াস বার তৈরির ব্যবসা

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে? (How much money does it take to soap making business?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করার জন্য আপনাকে কমপক্ষে 5 লক্ষ টাকা পুঁজি নিয়ে ব্যবসায়ী নামতে হবে। কারণ সমস্ত মেশিন কিনতে আপনার খরচ হবে 3-4 লক্ষ টাকা। আর বাকি টাকা প্রয়োজনীয় কাঁচামাল এবং বিজ্ঞাপনের পেছনে আপনার খরচ হবে। তাই আপনি যদি ছোট আকারেরও সাবান তৈরীর ব্যবসা শুরু করেন সে ক্ষেত্রেও আপনাকে কমপক্ষে 5 লক্ষ টাকা পুঁজি নিয়ে ব্যবসায় নামতে হবে। তবে আপনি যদি আরও বড় আকারের ব্যবসা করতে চান সেক্ষেত্রে 8 থেকে 10 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করে ব্যবসাটিকে বড় করে তুলতে পারেন। যেহেতু বর্তমান সময়ে সাবানের চাহিদা প্রচুর কিন্তু কম্পিটিশন অনেক কম তাই সাবান তৈরীর ব্যবসাতে জিবি নিয়োগ একটু বেশি হলেও লাভের পরিমাণ অনেক বেশি হতে পারে।

সাবান তৈরির ব্যবসায় লাভ কত? (How much is the profit in soap making business?)

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে যেমন অনেক টাকায় বিনিয়োগ করতে হয় তেমন এই ব্যবসাতে লাভের পরিমাণও অনেক বেশি হতে পারে। কমদামি কম কোয়ালিটির সাবান গুলি তৈরি করতে আপনার খরচ হবে মাত্র 3 থেকে 4 টাকা। আর সেই সাবান পাইকারি বাজার বিক্রি করতে পারবেন 6 থেকে 7 টাকা দামে। খুব ভালো কোয়ালিটির সাবান তৈরি করতে আপনার খরচ হবে 10 টাকা থেকে 15 টাকা। ভালো কোয়ালিটির সাবান পাইকারি বাজারে বিক্রি করতে পারেন 25 থেকে 50 টাকা দামে। বর্তমানে সাবান তৈরির ব্যবসাতে প্রতি মাসে আয় করা সম্ভব 2 লক্ষ থেকে 5 লক্ষ টাকার মত। আবার বড় ব্যবসায়ীরা প্রতিমাসে 10 থেকে 15 লক্ষ টাকাও আয় করেন।

আপনি যখন নতুন করে ব্যবসাটি শুরু করবেন তখন ব্যবসার শুরুর দিকে এত বেশি পরিমাণে লাভ না হলেও প্রতি মাসে 2 লক্ষ টাকার বেশি লাভ করতে পারবেন। তাই সাবান তৈরির ব্যবসাতে লাভ বেশি হওয়ার কারণে আপনি এই ব্যবসাটি করতে পারেন। তবে ব্যবসায় লাভের পরিমাণ নির্ভর করবে আপনি কি পদ্ধতিতে মার্কেটিং করছেন এবং কি কোয়ালিটির সাবান বিক্রি করছেন তার উপর।

জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন ও FAQ

সাবান তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে?

উত্তর: 5-6 লক্ষ টাকা সাবান তৈরির ব্যবসা করতে লাগে।

সাবান তৈরির কারখানা করতে কত জায়গা লাগে?

উত্তর: 1 হাজার স্কয়ার ফিট থেকে 1.5 হাজার স্কয়ার ফিট জায়গা লাগে সাবান তৈরির কারখানা করতে।

সাবান তৈরির উপাদান কি কি?

উত্তর: ওপরে সাবান তৈরির কাঁচামাল রয়েছে। বিভিন্ন তেল ও এসিড দিয়ে প্রস্তুত করা হয় শোপ নুডুলস। তার সাথে দেওয়া হয় শোপ স্টোন পাউডার এবং পারফিউম ও কালার।

সাবান তৈরির প্রশিক্ষণ কোথায় হয়?

উত্তর: যেকোনো সাবান তৈরির কোম্পানি এবং সাবান তৈরির মেশিনের বিক্রেতা সাবান তৈরির প্রশিক্ষণ দেন। এছাড়াও বিডিও অফিসে যোগাযোগ করলে সাবান তৈরির প্রশিক্ষণ পাওয়া যায়।

সাবান তৈরির মেশিনের দাম কত?

উত্তর: সাবান তৈরির 6 টা মেশিনের দাম 3 থেকে 4 লাখ টাকা।

সাবান ব্যবসায় লাভ কত?

উত্তর: প্রতিমাসে 2 লক্ষ টাকা থেকে 10 লক্ষ টাকা লাভ সাবান তৈরির ব্যবসায়

নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

ফলের ব্যবসা করুন

আমদানি রপ্তানি ব্যবসা করুন

Leave a Comment