সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা করে প্রতি মাসে 50 হাজার টাকা ইনকাম করুন | The business of making white phenyl , WOW

সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা এমন একটি ব্যবসা যা থেকে আপনি প্রতিমাসে কম করে 50 হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এবং এই ব্যবসা সারা বছর সমান ভাবে চলতে থাকবে যার কোন শেষ নেই।

Table of Contents

ফিনাইল ব্যবসা করতে কত টাকা খরচ?

ফিনাইল ব্যবসা করতে খরচ হয় খুবই অল্প টাকা। মাত্র 4-5 হাজার টাকা হলেই আপনি এই ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। কারণ এই ব্যবসা করার জন্য টাকার থেকে বেশি জিনিস যেটা দরকার হয় সেটা হচ্ছে মার্কেটিং করার ক্ষমতা। যা আমি আপনাকে শিখিয়ে দেবো কিভাবে মার্কেটিং করবেন।

সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা
সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা

অল্প টাকায় ব্যবসার আইডিয়া ফিনাইল তৈরির ব্যবসা

বুঝতেই পারছেন এর থেকে অল্প টাকায় ব্যবসা করা বর্তমান সময়ে সম্ভব নয়। কারণ মাত্র 3-4 হাজার টাকা হলেই আপনি এই ব্যবসা শুধু শুরু করতে পারবেন তাই নয়, এই 3-4 হাজার টাকা দিয়ে আপনি 10000 টাকা কামিয়ে ফেলতে পারবেন। তাহলে আর দেরি না করে এখনই এই ব্যবসা শুরু করুন।

সাদা ফিনাইল তৈরির ব্যবসায় কি কি কাঁচামাল লাগে?

সাদা ফিনাইল তৈরির ব্যবসার জন্য সামান্য কিছু কাঁচা মালের দরকার হয়।
1: হোয়াইট ফিনাইল কনসেনট্রেট
2: পারফিউম(বিভিন্ন ফ্লেভারের হতে পারে)
3: ফিনাইল বিক্রি করার জন্য পাত্র

ফিনাইল তৈরির কাঁচামাল কোথায় পাওয়া যায়?

ফিনাইল তৈরি করার জন্য কাঁচামাল আপনার শহরের নিকটবর্তী কেমিক্যাল দোকানে পাওয়া যেতে পারে। কিংবা আপনার শহরে যে সকল বিক্রেতা সার বিক্রি করে অথবা কেমিকাল বিক্রি করে তাদেরকে আনতে বললে তারা কিনে নিয়ে আসতে পারে এই সকল কাঁচামাল।
ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকে আপনি একসাথে অনেকটা পরিমাণে হোয়াইট ফিনাইল কনসেনট্রেট কিনতে পারবেন।

ফিনাইল তৈরির কাঁচামালের দাম কত?

ফিনাইল তৈরির কাঁচামালের দাম –
1: হোয়াইট ফিনাইল কনসেনট্রেট-200 টাকা প্রতি লিটার।
2: ফিগ্রেন্স বা সুগন্ধি-600 টাকা প্রতি লিটার।
3: ফিনাইল এক লিটারের বোতলের দাম পড়ে 3 টাকা।

সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা করতে কত বড় জায়গার প্রয়োজন হয়?

সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা জন্য খুব বেশি বড় জায়গার প্রয়োজন হবে না আপনি চাইলে আপনার ঘরের ভেতরেই আপনি ব্যবসা শুরু করতে পারেন অথবা আপনার ঘরের সাইজের একটি ঘর হলেই আপনি এই ব্যবসা নিঃসন্দেহে চালিয়ে যেতে পারেন।

কিভাবে ফিনাইল তৈরি হয়?

1 লিটার হোয়াইট ফিনাইল কনসেনট্রেট দিয়ে 20 লিটার ফিনাইল তৈরি করা যায়। অর্থাৎ 1/9 অনুপাতে ফিনাইল তৈরি হয়।
1 লিটার হোয়াইট ফিনাইল কনসেনট্রেট নিয়ে তার সাথে 10 গ্রাম কোন একটি ফ্লেভারের সুগন্ধি মিশিয়ে অল্প একটু জল দিয়ে নাড়তে হবে কিছুক্ষণ। কিছুক্ষণ নাড়ার ফলে মিশ্রণটি অনেকটা ঘন হয়ে যাবে তারপর সমস্ত মিশ্রণটি 19 লিটার জল ঢেলে দিয়ে সুন্দর করে মেরে মিশ্রণটি তৈরি করার পরে তৈরি হয়ে যাবে কুড়ি লিটারের হোয়াইট ফিনাইল।
তারপরেই ফিনাইল বাজারে বিক্রি করার জন্য যে পাত্র বাজে প্লাস্টিকের বোতল রয়েছে তার মধ্যে পরিমান মতো ফিনাইল ভরে লেবেল স্টিকার লাগিয়ে বাজারে বিক্রির জন্য প্রস্তুত করে ফেলুন।

ফিনাইল
সাদা-ফিনাইল

সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা জন্য কি ধরনের লাইসেন্স লাগে? লাইসেন্স কোথায় পাওয়া যায়?

ব্যবসার শুরুতেই আপনার কোনো লাইসেন্স এর দরকার পড়বে না। আপনি চাইলে 1-2 বছর বিনা লাইসেন্স নিয়ে ব্যবসা করতে পারেন। কিন্তু ব্যবসার পরবর্তীকালে আপনাকে ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে।
আবার আপনি চাইলে ব্যবসার শুরুতেই ট্রেড লাইসেন্স নিয়ে নিতে পারেন।
এই ট্রেড লাইসেন্স আপনি আপনার নিকটবর্তী পঞ্চায়েত অফিস অথবা কর্পোরেশন কিংবা বিডিও অফিস থেকে পেয়ে যাবেন। বর্তমানে অনলাইনে এপ্লাই করে ও ট্রেড লাইসেন্স পাওয়া যায়।
এরপর ব্যবসায়ী যখন বৃদ্ধি পাবে অর্থাৎ মাসে যখন আপনি দু’লক্ষ থেকে তিন লক্ষ টাকা ইনকাম করতে শুরু করবেন তখন আপনাকে GST লাইসেন্স নিতে হবে।

ফিনাইলের মার্কেটিং কিভাবে করতে হয়?

বর্তমানে মার্কেটিং দুই ধরনের হয়ে থাকে একটি অনলাইন মার্কেটিং আরেকটি অফলাইন মার্কেটিং।
বর্তমান সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হলে দু ধরনের মার্কেটিং কি আমাদের সমানভাবে করতে হবে।

ফিনাইল এর অনলাইন মার্কেটিং-

বিভিন্ন অনলাইন ই-কমার্স ওয়েবসাইট রয়েছে যেমন অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট, ইন্ডিয়ামার্ট এই ধরনের ওয়েবসাইটে আপনাকে একটি বিজনেস একাউন্ট খুলতে হবে। এবং তারপর সেই সব ওয়েবসাইটে আপনি আপনার কোম্পানির তৈরি সমস্ত প্রোডাক্টটের দাম সহ ছবি আপলোড করুন এবং দেখবেন অনলাইনে ব্যবসা অনেক দ্রুত গ্রো করছে।
এছাড়া আপনি চাইলে আপনার কোম্পানির নিজস্ব ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন এবং তার মাধ্যমে ব্যবসা করতে পারেন।
এছাড়া আছে ইনস্টাগ্রাম সেল আর ফেসবুক সেটিং। এই গুলোর জন্য আপনাকে ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে এবং সেখানে অনলাইন ব্যবসা করতে হবে।

ফিনাইল এর অনলাইন মার্কেটিং-

অনলাইন মারকেটিং মানে আমরা সকলেই জানি যে বিভিন্ন দোকান অথবা পাইকারি ব্যবসায়ীদের দ্বারা যে সকল ব্যবসা হয়ে থাকে সেই ব্যবসা গুলো কি আমরা মূলত সব লাইন ব্যবসার আওতায় ফেলে থাকি।
অফলাইন ব্যবসার জন্য আপনার কোম্পানির তৈরি ফিনাইল গুলি প্রতিটি দোকানে অথবা যেসকল ব্যবসায়ীরা পাইকারিতে কেনেন তাদেরকে গিয়ে দিতে হবে। এর মধ্য দিয়ে আপনার প্রোডাক্ট গুলি মানুষের কাছে পৌঁছে যাবে এবং আপনার ব্যবসায় লাভ হতে থাকবে।

ফিনাইল প্যাকেজিং কিভাবে করতে হয়?

ফিনাইল আমরা জানি দুই ধরনের হয়ে থাকে হোয়াইট ফিনাইল এবং ব্ল্যাক ফিনাইল।
তাই আপনি যেহেতু হোয়াইট ফিনাইল তৈরি করছেন সেই হোয়াইট ফিনাইল জীব প্লাস্টিকের বোতল অথবা পাত্রে আপনি বিক্রি করবেন তার গায়েতে হোয়াইট কালারের একটি সুন্দর স্টিকার লাগানো থাকতে হবে অথবা আপনার কোম্পানির নাম সহ ছবি দেওয়া খুব সুন্দর ছবি দেওয়া স্টিকার গায়ে লাগিয়ে সেই প্রোডাক্ট গুলি কে প্রস্তুত করুন যাতে মানুষ দেখলেই এক চান্সে আপনার প্রোডাক্ট গুলি কিনে নেয়।

সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা
সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা

ফিনাইল তৈরির ব্যবসা লাভ কত?

1 লিটার ফিনাইল তৈরি করতে খরচ হয় 11 টাকা। সেই এক লিটার ফিনাইল বাজারে বিক্রি করতে পারেন পাইকারি দরে 70-80 টাকায়। মানে বুঝতেই পারছেন যে 1 লিটার বিক্রি করে আপনি 70-80 টাকা লাভ করতে পারেন।
অনলাইনে 1 লিটার ফিনাইল বিক্রি হয় 150 টাকা। মানে আপনি যদি সরাসরি অনলাইনে বিক্রি করেন তাহলে 11 টাকার মাল 150 টাকায় বিক্রি করতে পারবেন।
তাই আপনি এই ব্যবসা করে খুব সহজেই মাসে 50000 টাকা ইনকাম করতে পারেন।

সাদা ফিনাইল তৈরীর ব্যবসা করতে গেলে কি কি সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে?

ফিনাইল তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে প্রথমে যে সকল পাইকারি ব্যবসায়ীদের আপনি আপনার তৈরি ফিনাইল দেবেন তাদের অল্প টাকা লাভ রেখে বিক্রি করবেন , যাতে তারা আপনার তৈরি ফিনাইল নিয়ে বাজারে বিক্রি করতে পারে। এতে আপনারই লাভের পরিমাণ টা সামান্য কমলেও সেলটা অনেকটা বেড়ে যাবে।
মার্কেটে অনেক কোম্পানির ফিনাইল রয়েছে তাই কোয়ালিটি মেইনটেইন করার চেষ্টা করবেন যাতে কোয়ালিটি ভালো হয় সেই দিকেই খেয়াল রাখবেন।
আর হোলসেল যে এমআরপি টা থাকবে সেটা অন্য কোম্পানি থেকে সামান্য কমে রাখার চেষ্টা করবেন যাতে ক্রেতারা আপনার কোম্পানির ফিনাইল কমদাম থাকার জন্য সেটি কেনে।

এইরকম অল্প টাকায় ব্যবসা আইডিয়া এতে দেখুন অন্যান্য ব্যবসার আইডিয়া-

খাতা তৈরির ব্যবসা / হাওয়াই চপ্পল তৈরির ব্যবসা

Leave a Comment