1 মপ তৈরির ব্যবসা করুন খুব অল্প পুজিতে | ঘর মোছা তৈরীর ব্যবসা (Mop Making Business RIGHT NOW )

মপ তৈরির ব্যবসা ততদিন চলবে যতদিন মানুষের জনজীবন চলবে। প্রতিটা মানুষের দৈনন্দিন ব্যবহারের একটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ জিনিস ঘর মোছা। তাই মপ বা ঘর মোছা তৈরীর ব্যবসা যদি আপনি করতে পারেন তাহলে তা সারা জীবন ধরে চালিয়ে যেতে পারবেন এই ব্যবসা। বিজ্ঞান যত উন্নত করুক না কেন ঘর মোছা, জিনিসটা প্রতিটা মানুষের দৈনন্দিন ব্যবহারের একটি অঙ্গ হিসেবেই থেকে গেছে এবং ভবিষ্যতেও থেকে যাবে।

হয়তো ভবিষ্যতে আরও উন্নত প্রযুক্তির ঘর মোছা তৈরি হবে। তাই আপনি যদি মপ তৈরির ব্যবসা শুরু করেন এখনি খুব অল্প টাকা খরচ করে তাহলে ভবিষ্যতে হয়তো আপনি এই ব্যবসায়ী রাজ করতে পারবেন। খুব কম সংখ্যক ব্যবসায়ীরা আছেন আপনার এলাকাতে যারা এই ব্যবসা শুরু করেছেন। তাই তাদেরকে টেক্কা দিতে আপনিও খুব অল্প পুঁজি নিয়ে ব্যবসা শুরু করুন। বর্তমান সময়ে কি ব্যবসা করবেন সাতপাঁচ না ভেবে এত অল্প কম পুঁজি নিয়ে ব্যবসা হয়তো আপনি আর বেশি খুঁজে পাবেন না তাই বেশি দেরি না করে এখনই শুরু করে ফেলা উচিত মপ বা ঘর মোছার ব্যবসা।

মপ তৈরির ব্যবসা
মপ তৈরির ব্যবসা

মপ বা ঘর মোছা তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে?

মাত্র 10 হাজার টাকা খরচ করে আপনি এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন। কারণ এই ব্যবসায় যেসকল সামগ্রী ব্যবহার করা হয় তার দাম খুবই কম হয়ে থাকে। ফলে 10 হাজার টাকা দিয়ে আপনি এই ব্যবসা শুরু করলেও পরবর্তীকালে আপনি চাইলে আরও কম পুজি নিয়ে এই ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারেন।

ঘর মোছা তৈরির জন্য কি মেশিন লাগে?

মপ তৈরি করার জন্য মাত্র দুটো মেশিন দরকার এবং সেই মেশিন দুটি দাম আপনার পড়বে মাত্র 4 হাজার টাকার মধ্যে। একটা মেশিন হল যার মধ্য আপনি সুতো মেজারিং করবেন।
আর একটা মেশিন হল ক্যাপস লক করার জন্য সিলিং মেশিন।

মপ তৈরির জন্য কি কি কাঁচামাল লাগে?

মপ তৈরি করার জন্য যে সকল কাঁচামাল লাগে সেগুলি হল-
1: সুতো
2: প্লাস্টিক ক্যাপ
3: প্লাস্টিকের লাঠি

jumbo cotton mop-yarn
সুতো

মপ তৈরির ব্যবসা করতে কত বড় জায়গার প্রয়োজন হয়?

মপ বা ঘর মোছা তৈরি করার জন্য খুব বেশি বড় জায়গার প্রয়োজন হয় না ঘরের এক কোণে একটা টেবিলে নিয়ে আপনি এই কাজ করতে পারেন। অথবা আপনি চাইলে অফিসের মধ্যেও পারটাইম সময় বের করে এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

কিভাবে মপ বা ঘর মোছা তৈরি করা হয়?

প্রথমে সুতোর বান্ডিল নিয়ে সুতো মেজারিং মেশিনের এক প্রান্তে লাগিয়ে, মেজারিং মেশিন হাত দিয়ে আপনি যদি কিছুক্ষণ ঘোরানো সুতোগুলি সুন্দরভাবে মিশনের গায়ে জড়িয়ে যাবে। তারপর মেশিনের দুপ্রান্তে সুতোর গুলি যদি আপনি কেটে দেন, দুটি ঘর মোছা তৈরি জন্য সুতো আপনি পেয়ে যাবেন।

এরপর ওই সুতোগুলো মাঝখানে একটি ক্লিপ লাগান তারপর একটি ক্যাপ নিয়ে ক্যাপটর সাথে ক্লিপ টা সেট করে সিলিং মেশিনের ডাইস এর মধ্য দিয়ে চাপ দিলেই একটি আওয়াজ শুনতে পাবেন তখন বুঝতে পারবেন যে ক্লিপটি ক্যাপ এর সঙ্গে লক হয়ে গেছে। এবং আপনার ঘর মোছার সামনের অংশটা তৈরি হয়ে যাবে।

এরপর ওর সঙ্গে হাতল লাগানো যে লাঠিটি রয়েছে সেটি ঘুরিয়ে লাগিয়ে দেওয়ার সাথে সাথে ঘর মোছা সম্পূর্ণরূপে তৈরি হয়ে যাবে। তারপর প্লাস্টিকের একটি প্যাকেট যার মধ্যে আপনার কোম্পানির নাম এবং লোগো লাগানো রয়েছে সেই প্লাস্টিক টি দিয়ে সম্পূর্ণ মপ টা মুড়ে বিক্রি করার জন্য তৈরি করে ফেলুন।

ঘর মোছা তৈরীর ব্যবসা
ঘর মোছা তৈরি

মপ তৈরির ব্যবসা করতে কি কি লাইসেন্স লাগে?

যে কোন ব্যবসা শুরু করার আগে আপনাকে একটি ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে ব্যবসার জন্য।
ঠিক তেমনই মপ তৈরির ব্যবসা করতে আপনাকে একটি ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে। এই ট্রেড লাইসেন্স আপনি আপনার নিকটবর্তী পঞ্চায়েত অফিস, বিডিও অফিস কিংবা কর্পোরেশন থেকে পেয়ে যাবেন।
বর্তমান সময়ে অনলাইনে এপ্লাই করে ও আপনি ট্রেড লাইসেন্স পেয়ে যাবেন।
পরে কোম্পানির সেল যখন তিন লাখ থেকে চার লাখ টাকা প্রতি মাসে হবে তখন আপনাকে GST লাইসেন্স নিতে হবে।

মপ বা ঘর মোছার মার্কেটিং কিভাবে করতে হয়?

বর্তমান সময়ে সমস্ত ব্যবসায়ীরাই দু’ধরনের পদ্ধতিতে মার্কেটিং করে থাকে। একটি পাইকারি বা রিটেল মার্কেটিং, আরেকটি অনলাইন মার্কেটিং। তাই আপনাকেও এই দু ধরনের মার্কেটিং করতে হবে আপনার ব্যবসাকে বড় করার জন্য।

পাইকারি বা রিটেল মার্কেটিং কিভাবে করতে হয়?

আপনার কোম্পানিতে তৈরি মপ বা ঘর মোছা আপনার নিকটবর্তী বাজারের প্রতিটা দোকানে আপনি বিক্রি করতে পারেন অথবা আপনি চাইলে যে সকল হোলসেলার এবং পাইকারি বিক্রেতা রয়েছেন আপনার এলাকার কাছাকাছি, তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের সরাসরি আপনি পাইকারি রেটে সমস্ত মাল বিক্রি করতে পারেন। তবে এই ব্যবসা শুধুমাত্র এইভাবে করে সফল হতে পারবেন না তার জন্য অনলাইন মার্কেটিং তাও আপনাকে করতে হবে।

অনলাইন মার্কেটিং কিভাবে করা হয়?

প্রথমে আপনাকে অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট, ইন্ডিয়ামার্ট এই ধরনের ই-কমার্স ওয়েবসাইট এ একটি করে বিজনেস একাউন্ট খুলতে হবে। তারপর সেই একাউন্টের মধ্য যেভাবে আপনি ফেসবুক বা হোয়াটসঅ্যাপে ছবি ছাড়েন, সেই রকম খুব সহজ উপায়ে আপনার কোম্পানির প্রোডাক্ট এর ছবি সহ সমস্ত তথ্য সেই সব সাইটে আপনাকে আপলোড করতে হবে।


আপলোড করার সাথে সাথেই কিছুদিনের মধ্যে থেকেই আপনি দেখতে পাবেন এই অনলাইন থেকে অনেক ক্রেতা যারা সরাসরি রিটেল দামে আপনার কাছ থেকে প্রোডাক্ট কিনবে। অর্থাৎ যে প্রোডাক্টটি আপনি পাইকারি রেটে 50 টাকায় বিক্রি করতেন সেই প্রোডাক্টটি অনলাইনে আপনি 100 টাকাতে বিক্রি করতে পারবেন। এখানে অনলাইনে বিক্রি করে অনেক বেশি পরিমাণে লাভবান হচ্ছে বর্তমান সময়ের ব্যবসায়ীরা তাই আপনাকেও অনলাইন ব্যবসার ওপরে একটু বেশি পরিমাণে জোর দিতে হবে । কারণ বর্তমান সময়ে সমস্ত ব্যবসায়ী এখন অনলাইন পদ্ধতি শুরু হয়ে গেছে এবং সমস্ত মানুষ অনলাইনে দিকেই বেশি পরিমাণে ঝুঁকছে।

mop making machine
মপ তৈরির মেশিন

ঘর মোছা তৈরীর ব্যবসা জন্য কি ধরনের ইলেকট্রিক প্রয়োজন?

সাধারণত প্রতিটি ব্যবসার জন্য কমার্শিয়াল ইলেকট্রিক এর দরকার হয়। কিন্তু আপনি যেহেতু ব্যবসা ছোট ভাবে শুরু করছেন তাই প্রথমে ব্যবসার শুরুতে আপনার বাড়ি টু-টোয়েন্টি ইলেকট্রিক এই সমস্ত মেশিন চালাতে পারবেন। এবং আলাদা করে কমার্শিয়াল ইলেকট্রিক এর দরকার পড়বে না।

মপ বা ঘর মোছা তৈরীর ব্যবসায় লাভ কত? (Ghor mocha toirir babsai lav koto)

মম না ঘর মোছা তৈরীর ব্যবসায় লাভ হয় অনেকটা বেশি পরিমাণে। একটা মপ সম্পূর্ণ তৈরি করতে আপনার খরচ হয় 29 টাকা। পাইকারি মার্কেট এ আপনি বিক্রি করতে পারেন 15 থেকে 20 টাকা লাভ রেখে। অর্থাৎ 29 টাকার মাল আপনি 50 টাকা পাইকারি রেটে বিক্রি করতে পারেন। প্রতিদিন একটা মেশিন থেকে 400 থেকে 500 টি মপ তৈরি করতে পারেন।


আপনি যদি সঠিক এবং সুন্দর মার্কেটিং করতে পারেন বা প্রতিদিন একশটি করে মপ বিক্রি করতে পারেন তাহলে আপনার প্রতিদিন লাভ হবে কম করে 1.5 হাজার টাকা। এবং আপনি যদি 100 টির বেশি প্রতিদিন বিক্রি করতে পারেন অর্থাৎ প্রতিদিন আপনি যে 400 থেকে 500 টি মপ তৈরি করছেন তা প্রতিদিনই বিক্রি করতে পারেন তাহলে প্রতিদিন আপনার ইনকাম কম করে 6 থেকে 7 হাজার টাকা

মপ বা ঘর মোছার ব্যবসা করতে গেলে কি কি সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়?

প্রথমত মার্কেটে অনেক নামিদামি কোম্পানির মপ বা ঘর মোছা বিক্রি হয়ে থাকে, সেই মার্কেটে আপনাকে দাঁড়াতে হলে প্রথমে আপনার প্রোডাক্টের কোয়ালিটি উপরে আপনাকে জোর দিতে হবে।
এবং ব্যবসায় শুরুতে আপনি বেশি লাভ না রেখে অল্প লাভ রেখে যদি প্রোডাক্ট গুলো বিক্রি করতে পারেন তাহলে আপনার প্রোডাক্ট গুলি খুব দ্রুত সব মানুষ কিনে নেবে এবং এতে আপনার লাভের পরিমাণ অনেক বাড়বে।
মারকেটিং যদি সঠিকভাবে আপনি করতে না পারেন তাহলে যে কোন ব্যবসা করায় কঠিন হবে তাই মার্কেটিং টা সঠিক উপায় এবং সঠিকভাবে করার চেষ্টা করবেন।

কম পুঁজি লাগিয়ে নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

পানীয় জলের ব্যবসা

মাছের আঁশের ব্যবসা

3 thoughts on “1 মপ তৈরির ব্যবসা করুন খুব অল্প পুজিতে | ঘর মোছা তৈরীর ব্যবসা (Mop Making Business RIGHT NOW )”

Leave a Comment