পেরেক তৈরির ব্যবসা করে আয় করুন প্রতি মাসে 80 হাজার টাকা |How to start Wire Nail Making business, WOW

পেরেক তৈরির ব্যবসা এমন একটি ব্যবসা যা আপনাকে সারা জীবন অর্থের অভাব বুঝতে দেবে না। একবার শুধুমাত্র মেশিন কিনে ব্যবসা শুরু করলেই আপনি প্রতি মাসে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করতে পারবেন একটা মেশিন থেকে। পেরেক তৈরির ব্যবসা করে প্রতিমাসে আপনি যেমন অনেক টাকা ইনকাম করতে পারছেন ঠিক তেমনি এই ব্যবসা করে আপনি আপনার এলাকার প্রথম এবং সফল ব্যবসায়ী হতে পারবেন।

পেরেক তৈরির ব্যবসা
পেরেক তৈরির ব্যবসা

Table of Contents

পেরেক তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা খরচ হবে? (How much does it cost to run a wire nail business?)

পেরেক তৈরির ব্যবসা করতে সর্বনিম্ন আপনার খরচ হতে পারে 3.5 লক্ষ টাকা। হয়তো এই ব্যবসাতে একটু বেশি বুঝি খরচা হচ্ছে কিন্তু ইনকাম হতে পারে একটা মেশিন থেকে সর্বোচ্চ 60 হাজার টাকা পর্যন্ত। তাই আপনি অন্য কোন ব্যবসা করার আগে যেমন একটু ভাবেন, তেমন এই ব্যবসা করার আগে একটু ভেবেচিন্তে এই ব্যবসাটি করবেন, কারণ এই ব্যবসায় লাভ অনেক বেশি, সেই তুলনায় ইনভেস্টমেন্ট অনেক কম হয়।

তারকাটা তৈরীর ব্যবসায় কাঁচামাল কি কি লাগে?

তারকাটা/পেরেক তৈরি করার জন্য শুধুমাত্র যে কাঁচামাল টি লাগে সেটি হচ্ছে লোহার তার।
লোহার তার বিভিন্ন কোয়ালিটির এবং বিভিন্ন ধরনের হয়ে থাকে। ফলে আপনি যেমন ধরনের তারকাটা তৈরি করতে চাইছেন সেই ধরনের তার কিনতে হবে আপনাকে।

Iron Wire Nail Making business
তারকাটা/পেরেক তৈরীর কাঁচামাল

লোহার পেরেক তৈরীর কাঁচামাল কোথায় কিনতে পাওয়া যাবে?

লোহার তারের পেরেক তৈরীর কাঁচামাল কিনতে হলে আপনাকে আপনার নিকটবর্তী পাইকারি হোলসেল মার্কেট থেকে কিনতে হবে। আপনি যদি ভারতবর্ষে থেকে থাকেন তাহলে ভারতবর্ষে কয়েকটি জাগাতে শুধুমাত্র এই তার তৈরি হয়ে থাকে। আপনি যদি সরাসরি কোম্পানি থেকে লোহার তার কিনেন তাহলে অনেক কম দামে আপনি লোহার তার কিনতে পারবেন। ছত্রিশগড়ের রায়পুর এবং পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুরে লোহার তারের কোম্পানি রয়েছে। আপনারা চাইলে সরাসরি কোম্পানি থেকে লোহার তার অল্প দামে কিনে ব্যবসা করতে পারেন।


এছাড়া আপনারা যদি চান যে সরাসরি কোম্পানি থেকে কেনাকাটা আপনাদের অসুবিধা হবে তাহলে কলকাতার বড় বাজার থেকে আপনারা তার কিনে পেরেক তৈরীর ব্যবসা করতে পারেন। এছাড়া বর্তমানে ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকে বিভিন্ন ধরনের তার দেখে সেখান থেকে কিনতে পারেন। বর্তমানে সমস্ত কোম্পানি ইন্ডিয়ামার্ট এ তাদের প্রোডাক্ট গুলি বিক্রি করে থাকে, তাই আপনারা চাইলে ইন্ডিয়ামার্ট থেকেও তার কিনে পেরেক তৈরির ব্যবসা করতে পারেন।

পেরেক তৈরীর মেশিন কোথায় পাওয়া যায়? (Perek toirir machine kothai kinte pawa jai?)

পেরেক তৈরীর মেশিন বেশকিছু জায়গাতে তৈরি হয়ে থাকে। কিছুদিন আগে পর্যন্ত পেরেক তৈরীর মেশিন গুলি মূলত ভারতবর্ষের বিভিন্ন জায়গা থেকে কিনে নিয়ে এসে ব্যবসা করত পশ্চিমবঙ্গ সহ আশেপাশের মানুষজন। তবে বর্তমান সময়ে পেরেক তৈরীর মেশিন পশ্চিমবঙ্গের বেশ কয়েকটা কোম্পানি তৈরি করে থাকে। আপনারা চাইলে সেই সমস্ত কোম্পানির সাথে সরাসরি যোগাযোগ করে পেরেক তৈরীর মেশিন কিনতে ব্যবসা করতে পারেন।
এছাড়া ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকে পেরেক তৈরীর মেশিন কিনে আপনারা ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

Wire Nail making machine
পেরেক তৈরীর মেশিন / তারকাটা মেশিন


তবে ইন্ডিয়ামার্ট অথবা অনলাইনে অন্য কোন কোম্পানির থেকে সরাসরি মেশিন কিনে যদি আপনারা ব্যবসা করতে চান, তাতে সমস্যা যেটা হবে মেশিন কেনার পরে মেশিন ফিটিং এবং মেশিনের অন্যান্য প্রবলেম গুলি আপনাকে নিজেকে সমাধান করতে হবে ।তবে যদি আপনি পশ্চিমবঙ্গের যেসকল কোম্পানিগুলি আছে তাদের কাছ থেকে মেশিন কেনেন তাহলে তারা নিজেরাই আপনার ঘরে এসে মেশিন বসিয়ে এবং চালিয়ে দিয়ে যাবে। এবং যাবতীয় সমস্যা হলে সেই সমস্যাগুলো এই সকল কোম্পানিগুলি সমাধান করার প্রতিশ্রুতি দিয়ে থাকে।
+8801746-222768

+91 9804 3340 20 / +91 7439 188 303
এই ফোন নাম্বারে ফোন করে আপনারা সরাসরি কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করতে পারেন এবং পেরেক তৈরীর মেশিন কিনে পেরেক তৈরির ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

পেরেক তৈরীর মেশিন কত প্রকারের হয়ে থাকে?

পেরেক তৈরির ব্যবসা করতে হলে আগে জানতে হবে পেরেক তৈরীর মেশিন কত প্রকারের হয়ে থাকে।
পেরেক তৈরীর ব্যবসার জন্য তিন ধরনের মেশিন লাগে-
1: পেরেক তৈরীর মেশিন(Wire Nail making machine)
2: পেরেক পলিশ মেশিন (Wire Nail polishing machine)
3: গ্রাইন্ডার মেশিন(Grinder machine)

১/২ ইঞ্চি – ৬ ইঞ্চি অটোমেটিক তারকাটা/পেরেক তৈরির মেশিন। অটোমেটিক তারকাটা/পেরেক তৈরির চায়না মেশিনের দাম লোকাল মেশিন থেকে অপেক্ষাকৃত বেশি। চায়না মেশিনে উৎপাদিত পেরেক বাজার মূল্য সাধারণ মেশিনে উৎপাদিত তারকাটা/ পেরেক থেকে বেশি।

পেরেক তৈরীর মেশিন এর দাম কত?

½-2 ইঞ্চি পেরেকপেরেক তৈরীর মেশিন এর দাম 2 লাখ 20 হাজার টাকা
1-3 ইঞ্চি পেরেকপেরেক তৈরীর মেশিন এর দাম 2 লক্ষ 70 হাজার টাকা
1-4 ইঞ্চি পেরেকপেরেক তৈরীর মেশিন এর দাম 3 লক্ষ 50 হাজার টাকা
পেরেক পালিশ মেশিনের দাম 75 হাজার টাকা
গ্রাইন্ডার মেশিনের এর দাম25 হাজার টাকা
পেরেক তৈরীর মেশিন এর দাম

1: ½”-2″ পেরেক তৈরীর মেশিন এর দাম 2 লাখ 20 হাজার টাকা।
2: 1″-3″পেরেক তৈরীর মেশিন এর দাম 2 লক্ষ 70 হাজার টাকা।
3: 1″-4″ পেরেক তৈরীর মেশিন এর দাম 3 লক্ষ 50 হাজার টাকা।
4: পেরেক পালিশ মেশিনের দাম 75 হাজার টাকা।
5: গ্রাইন্ডার এর দাম 25 হাজার টাকা।

কিভাবে পেরেক বানানো হয়?(How are wire nails made?)

তারের গোছাটা রোলিং মেশিন এর মধ্য লাগিয়ে দিন। তারপর তারের ডগার অংশটি পেরেক তৈরীর মেশিন এর ভেতরে লাগিয়ে মেশিন চালিয়ে দিলে মেশিন অটোমেটিক ভাবে তার কাটতে থাকবে এবং পেরেক তৈরি করে পেরেক গুলি বের করতে থাকবে। এরপর পেরেক গুলি নিয়ে পেরেক পালিশ মেশিনের ভেতর দিয়ে কাঠ-গুড়ো পেরেক পালিশ মেশিনের ভিতরে দিয়ে দিতে হবে। পেরেক এবং কাঠ-গুড়ো একসাথে পেরেক পালিশ মেশিনের ভিতরে আধঘন্টা ধরে ঘুরতে থাকবে এবং পেরেক গুলি খুব সুন্দর ভাবে পালিশ হয়ে যাবে। 500 কেজি পেরেক একসাথে পালিশ করা যায়।


এরপর যদি কোন পেরেক এর মাথা ধারালো না হয়ে থাকে তাহলে গ্রাইন্ডার মেশিন দিয়ে পেরেকের মাথা ধারালো করে নিতে হবে। তারপর পেরেক বাজারে বিক্রি করার জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে এবং এক একটা বস্তায় 20 কেজি 50 কেজি এইভাবে দিয়ে বাজারে বিক্রি করে ফেলুন।

Wire Nail polishing machine
পেরেক পালিশ মেশিন

পেরেক তৈরীর ব্যবসার জন্য কত বড় জায়গার প্রয়োজন?

পেরেক তৈরীর ব্যবসার জন্য একটু বড় জায়গার প্রয়োজন আছে। তাই পেরেক তৈরি ব্যবসা করার আগে আপনাকে 200 স্কয়ার ফিটের জায়গা নির্বাচন করতে হবে। যার মধ্য মেশিন ছাড়া পেরেক এবং কাঁচামাল গুলি রাখতে পারবেন।
পরবর্তীকালে যদি আপনি আরো মেশিন বাড়াতে চান তাহলে 200 স্কয়ার ফিট জায়গার মধ্যে আপনার হয়ে যাবে, কিন্তু ব্যবসা শুরুর আগে 200 স্কয়ার ফিট জায়গা অবশ্যই দরকার।

দেখুন নতুন ব্যবসা- ইলেকট্রিক সাইকেলের ডিলারশিপ

পেরেক তৈরির ব্যবসা জন্য কি ধরনের ইলেকট্রিসিটি প্রয়োজন?(What kind of electricity is required for nail making business?)

পেরেক তৈরীর মেশিন চালানোর জন্য অবশ্যই 440 ভোল্টের ইলেকট্রিসিটি দরকার। কারণ পেরেক তৈরীর মেশিন টু-টোয়েন্টি ভল্টে চলে না। তাই জন্য পেরেক তৈরি ব্যবসা করার আগে ইলেকট্রিক অফিসে একটি কমার্শিয়াল ইলেকট্রিসিটির জন্য আবেদন করুন। এবং 440 ভোল্টের ইলেকট্রিসিটি নিয়ে নিন।

পেরেক তৈরির ব্যবসা করতে কি কি লাইসেন্স দরকার?(What kind of license is required to run a nail business?)

পেরেক তৈরীর ব্যবসার জন্য খুব বেশি লাইসেন্সের দরকার পড়ে না। তাই জন্য শুধুমাত্র ট্রেড লাইসেন্স হলেই আপনি পেরেক তৈরির ব্যবসা করতে পারবেন।
ট্রেড লাইসেন্স আপনার নিকটবর্তী পঞ্চায়েত অফিস কিংবা বিডিও অফিস অথবা কর্পোরেশন অফিস থেকে পেয়ে যাবেন।
বর্তমান সময়ে ট্রেড লাইসেন্স অনলাইনে এপ্লাই করেও পাওয়া যায়।

পেরেক এর মার্কেটিং কিভাবে করতে হয়? (How to do nail marketing?)

আপনি যে এলাকাতে বাস করেন সেই এলাকার আশেপাশের হার্ডওয়ারের দোকান গুলিতে পেরেক খুব দরকার তাই সেই সব দোকান গুলোতে আপনি পেরেক বিক্রি করতে পারেন। এছাড়া গ্রামীণ অঞ্চলে সাধারণ দোকানেও পেরেক রাখে তাই আপনি চাইলে এই সকল দোকানেও পেরেক বিক্রি করতে পারেন।
বিলডিং কন্টাকটার যারা থাকে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে তাদের সরাসরি পেরেক বিক্রি করতে পারেন। বর্তমান সময়ে অনলাইনে অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট, ইন্ডিয়ামার্ট , মিশো ওয়েবসাইট এ পেরেক বিক্রি হয়ে থাকে, তাই আপনিও ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট এ একটি সেলার একাউন্ট খুলে পেরেক বিক্রি করতে পারেন।

পেরেকের প্যাকেজিং কিভাবে করতে হয়?

পেরেক ভালো রাখার জন্য আপনি আপনার কোম্পানির নাম লাগানো লোগো প্লাস্টিক বস্তার ওপরে ছাপিয়ে নিন। তারপর 1 কেজি থেকে 50 কেজি পর্যন্ত প্যাকেট তৈরি করে, সেই প্যাকেটের ভেতরে পেরেক ভর্তি করে দোকানদারদের বিক্রি করতে পারেন। এতে দোকানদারদের যেমন সুবিধা হবে, তেমন যে কাস্টমার কিনবে তারাও অনেকটা আকর্ষণ অনুভব করবে আপনার পেরেকের প্রতি।যদিও পেরেকের প্যাকেজিং আলাদা করে করে না কোন ব্যবসায়ী কিন্তু আপনি যদি করতে পারেন তাহলে আপনার তৈরি পেরেক কাস্টমারের ভালো লাগবে এবং তারা নেবে ততো বেশি বেশি করে।

আরও দেখুন- ব্যবসা করুন মাত্র 600 টাকা দিয়ে

পেরেক তৈরীর ব্যবসায় লাভ কত?(What is the profit of nail making business?)

প্রতিদিন একটা মেশিন 400 থেকে 600 কেজি পেরেক তৈরি করতে পারে। 35 টাকা তারের দাম সাধারণত হয়ে থাকে। 2 টাকা ইলেকট্রিক এবং লেবার চার্জ প্রতিকেজিতে পড়বে। অর্থাৎ 1 কেজি পেরেক তৈরি করতে পরবে 37 টাকা। পাইকারি পেরেক বিক্রি হয়ে থাকে সর্বনিম্ন 42 টাকা থেকে 45 টাকা। প্রতিকেজিতে আপনার লাভ হবে 5 টাকা থেকে 8 টাকা। যদি ধরে নেয়া যায় আপনি প্রতিদিন 400 কেজি মাল বিক্রি করতে পারেন তাহলে প্রতিদিন আপনি লাভ করতে পারেন 2000 টাকা করে। আপনি প্রতিদিন 600 কেজি মাল বিক্রি করেন, তাহলে কম করে লাভ রাখবেন 3000 টাকা প্রতিদিন। অর্থাৎ এক মাসে সর্বনিম্ন আপনার আয় হবে 60 হাজার টাকা।

পেরেক তৈরির ব্যবসা করতে গেলে কি কি সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে?

পেরেক তৈরির ব্যবসা করতে হলে আপনাকে বেশ কিছু সমস্যার সম্মুখীন প্রথমের দিকে হলেও হতে পারে। কারণ বাজারে সমস্ত দোকানদার অলরেডি কোন না কোন জায়গা থেকে পেরেক কিনে আনছে, তাই সেই সব দোকানদারদের সস্তা রেটে পেরেক বিক্রি করতে হবে আপনাকে। প্রথমের দিকে লাভটা আপনি একটু কম রাখবেন তাহলে ছেলেটা বেশি হবে এবং মার্কেট টা ধরতে পারবেন।

বাজারে বিক্রি হওয়া বাকি সব পেরেকের থেকে আপনার তৈরি পেরেক যেন কোন অংশে কোয়ালিটির দিকে কম না হয়ে থাকে। প্রতিদিন আপনি যেমন 400 থেকে 600 কেজি পেরেক তৈরি করছেন তেমন চেষ্টা করতে হবে প্রতিদিন 400 থেকে 600 কেজি পেরেক যেন বাজারে বিক্রি করা যায়। ফলে আপনাকে মারকেটিং টা খুব ভালো করে করতে হবে। যদিও ব্যবসার শুরুতে মার্কেট ধরতে একটু সমস্যা হতে পারে, তবে ধীরে ধীরে সমস্ত মার্কেট টা ধরে ফেললে আপনি বুঝতে পারবেন 600 কেজি ও প্রতিদিন কম পড়ে যাচ্ছে। তখন আরও একটা নতুন মেশিন আপনাকে কিনতে হতে পারে। ভয় পাবেন না সাহস রাখুন মনের ভেতর আর ব্যবসা করে যান মন খুলে।

নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

চিপস তৈরির ব্যবসা

পেপার প্লেট বিজনেস আইডিয়া

Leave a Comment