ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা | Naphthalene Ball Making Business Successful Method 1

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা বর্তমানে খুব সফলতার সাথে এগিয়ে চলেছে। বর্তমানের প্রতিটা পরিবার তাদের জামাকাপড় পোকামাকড় থেকে বাঁচানোর জন্য এবং বাথরুমের দুর্গন্ধ দূর করার জন্য ন্যাপথলিন বল কেনেন। সেই কারণে বাজারে ন্যাপথালিন বলের চাহিদা প্রচুর থাকে। আপনি যদি সফলভাবে ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার জন্য আজকের এই পোস্ট। চলুন দেখে নেওয়া যাক কোন কোন পদ্ধতিতে ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করলে আপনি সফল ব্যবসায়ী হবেন।

Naphthalene ball making business
ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা

Table of Contents

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে? (How much does it cost to run a naphthalene ball making business?)

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা শুরু করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে বেশ কিছু টাকা খরচ করতে হবে। আপনি যদি ছোট করে ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা শুরু করেন তাহলে আপনার পুঁজি লাগবে 1 লক্ষ টাকা থেকে 2 লক্ষ টাকা পর্যন্ত। আপনি যদি বড় করে এই ব্যবসা শুরু করতে চান তাহলে আপনার খরচ হবে 2 লক্ষ টাকা থেকে 3 লক্ষ টাকা।

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে কি কি কাঁচামাল লাগে?

ন্যাপথালিন বল তৈরীর ব্যবসা করার জন্য অবশ্যই আপনাকে বেশ কিছু কাঁচামাল কিনতে হবে। আর সেই কাঁচামাল গুলি হল-

  • ন্যাপথলিন ফ্লেক্স বা ন্যাপথলিন গুরো
  • কর্পূর
  • প্যারাফিন মোম
  • ফেনল
  • প্লাস্টিক প্যাকেট (প্যাকেজিং করার জন্য)
  • কাগজের কার্টুন (প্যাকেজিং করার জন্য)

ন্যাপথালিন বল তৈরির কাঁচামাল কোথায় কিনতে পাওয়া যায়? (Where can I buy raw materials for making naphthalene balls?)

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করার জন্য আপনাকে সমস্ত কাঁচামাল খুব কম দামে কেনার ব্যবস্থা করতে হবে। প্রয়োজনীয় সকল কাঁচামাল আপনি চাইলে বড় হোলসেল মার্কেট থেকে কিনতে পারেন। আবার অনলাইনে ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকেও অল্প দামে প্রতিটা কাঁচামাল নির্দিষ্ট পরিমান মত কিনতে পারেন। কলকাতার বড় বাজার হোলসেল মার্কেট এবং বাংলাদেশের চকবাজার পাইকারি মার্কেট এর ন্যাপথলিন বল তৈরীর সমস্ত কাঁচামাল বিক্রি হয়ে থাকে। তাই আপনি চাইলে এইসব বড় হোলসেল মার্কেটে গিয়ে একটু বেশি পরিমাণ অনুযায়ী সকল প্রকার কাঁচামাল কিনে নিতে পারেন। এছাড়াও আপনার শহরের যে কোন কেমিক্যাল দোকান থেকে আপনি সকল প্রকার কাঁচামাল কিনতে পারেন।

অবশ্যই পড়ুন- ব্যবসা করে 50 হাজার টাকা আয় করুন

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে কি কি মেশিন লাগে? (What machines do you need to make naphthalene ball making business?)

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করার জন্য আপনাকে বেশ কিছু মেশিন কিনতে হবে। আর মেশিনের সাথে সাথে কয়েকটি আসবাবপত্র বানাতে হবে। বর্তমানে ন্যাপথলিন তৈরি করার জন্য দুই ধরনের মেশিন পাওয়া যায়। একটা হাতে চালানো ম্যানুয়াল মেশিন এবং আর একটা ইলেকট্রিকে চলে অটোমেটিক মেশিন। দুই ধরনের মেশিনের দাম আলাদা আলাদা রকমের হয়ে থাকে। ম্যানুয়াল হস্তচালিত মেশিনের সাহায্যে আপনি এক ধরনের ন্যাপথলিন বল বানাতে পারবেন। তবে আপনি যদি অটোমেটিক ইলেকট্রিক মেশিন কিনে ব্যবসা করেন তাহলে আপনি বিভিন্ন ধরনের ন্যাপথলিন বল বা ন্যাপথলিন এর বরি বানাতে পারবেন।ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে যে সকল মেশিন গুলির প্রয়োজন হয় সেগুলি হল-

  • এম এস জ্যাকেটেড কেটলি
  • সালফিউরিক অ্যাসিড স্টোরেজ ট্রাংক
  • বাষ্প পতন কেটলি
  • এজ রানার
  • ডেলিভারি পাম্প (ছোট)
  • ডাইস
  • ট্যাবলেট তৈরির মেশিন
  • ওজন স্কেল
  • ওয়েট মেশিন
  • পাউচ সিলিং মেশিন

ন্যাপথালিন তৈরির মেশিনের দাম কত? (How much does a naphthalene machine cost?)

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে যেমন বিভিন্ন ধরনের মেশিন এবং জিনিসপত্র কিনতে হচ্ছে তাদের দাম আলাদা আলাদা রকমের হতে পারে এলাকা অনুযায়ী। যেমন কোন একটা মেশিনের দাম ভারতে যেটা হবে বাংলাদেশে আবার ভিন্ন হতে পারে। আবার ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে আলাদা আলাদা দামেও মেশিন নির্মাতা কোম্পানি মেশিন নির্মাণ করে থাকে। তবে সাধারণত যে দামে আপনি মেশিন গুলি কিনতে পারবেন সেগুলি হল-

  • ন্যাপথালিন বল তৈরীর মেশিন এর দাম- 55 হাজার টাকা থেকে 70 হাজার টাকার মধ্যে।
  • এম এস জ্যাকেটেড মেশিনের দাম- 1 লক্ষ টাকা থেকে 1.5 লক্ষ টাকা।
  • স্টোরেজ ট্রাংক এর দাম- 20 হাজার টাকা থেকে 35 হাজার টাকার মধ্যে।
  • ডাইস এর দাম-1 হাজার টাকা থেকে 2 হাজার টাকার মধ্যে।
  • ম্যানুয়াল ন্যাপথালিন বল তৈরির মেশিনের দাম-50 হাজার টাকা থেকে 70 হাজার টাকা।
Naphthalene making machine
ন্যাপথালিন তৈরির মেশিন

ন্যাপথালিন বল তৈরির মেশিন কোথায় কিনতে পাওয়া যায়?

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে যেমন কাঁচামাল কিনতে হবে তেমন তার পাশাপাশি বিভিন্ন মেশিন কিনতে হবে। ন্যাপথালিন তৈরীর মেশিন কেনার জন্য আপনাকে আপনার শহরের যেকোনো বড় মেশিন নির্মাতা কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করতে হবে।

পশ্চিমবঙ্গের বড় বড় মেশিন নির্মাতা কোম্পানির যোগাযোগ নাম্বার দেওয়া হল।

  • Bharat machine tool industries,61, Ganesh Chandra Avenue, Kolkata-700013
  • SUKHRAJ MACHINERY CO. AN ISO 9001: 2015 CERTIFIED Co. 52, old Indl. Focal Point (OLD), Mehta Road, Amritsar – 143001 (PUNJAB) (M): 06239268216
  • B-20, Street No. 2, Kanti Nagar Extn. , Near Welcome Metro Station, Delhi-110051,Call 9718179700 for more information
  • For Machine Inquiry: Call Us: +91-9681929247,+91-9339029247 Mail Us: info@pathak.in

বাংলাদেশের মেশিন নির্মাতা কোম্পানির যোগাযোগ নাম্বার দেওয়া হল।

  • Machine Dhaka-1200, Contact: +88018005311413
  • Business Bangla Corporation Shop No – 182, 197 Sundarban Square Supermarkt Gulisthan, Dhaka-1000, Contact: +8801879976968
  • MS Machinery, Rajendrapur, Railgate District- Gajipur, Bangladesh. Contact: +8801797498160 / +8801933457710

এছাড়াও আপনি চাইলে অনলাইনে ইন্ডিয়ামার্ট অ্যামাজন আলিবাবা প্রকৃতি ওয়েব সাইট থেকে অনলাইনের মাধ্যমে কিন্তে পারেন। এছাড়াও আপনি চাইলে যেখান থেকে কাঁচামাল কিনবেন সেখানেই যোগাযোগ করলে মেশিনের কোম্পানির সাথে আপনার যোগাযোগ হয়ে যাবে।

আরো পড়ুন- চাউমিন তৈরির ব্যবসা

ন্যাপথালিন বল তৈরীর ব্যবসা করতে কি কি লাইসেন্স এর প্রয়োজন? (What license is required to make naphthalene ball making business?)

প্রতিটা ব্যবসার মতো ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে বিভিন্ন ধরনের লাইসেন্স নিতে হবে। যেমন প্রতিটা কম্পানি তাদের ব্যবসা শুরু করার জন্য ট্রেড লাইসেন্স নিয়ে থাকে, তেমনি আপনাকেও আপনার ব্যবসা শুরু করার আগেই ট্রেড লাইসেন্সের জন্য আবেদন করতে হবে। এছাড়াও আপনাকে জিএসটি নাম্বার নিতে হবে।
ROC (রেগিস্ট্রেশন অফ কম্পানিজ) এর জন্য আপনাকে আবেদন করতে হবে এবং ROC লাইসেন্স নিতে হবে। এছাড়াও আপনাকে দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের ছাড়পত্র নিতে হবে।

প্রতিটা লাইসেন্সের জন্য আপনি আপনার নিকটবর্তী পঞ্চায়েত অফিস ও বিডিও অফিস কিংবা কর্পোরেশন অফিসে যোগাযোগ করতে পারেন। এছাড়াও আপনি চাইলে সকল প্রকার লাইসেন্স অনলাইনে এপ্লাই করে পেয়ে যেতে পারেন। প্রতিটা লাইসেন্সের জন্য আপনাকে খরচ করতে হবে দুই থেকে তিন হাজার টাকা। তবে ব্যবসার শুরুতেই আপনি লাইসেন্স না নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে পারেন। তবে ব্যবসা করার ক্ষেত্রে আইনি জটিলতা এড়ানোর জন্য লাইসেন্সের দরকার আপনার অবশ্যই পড়বে। তাই যদি আপনি ব্যবসার শুরুতে কোন লাইসেন্স না নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন তাহলে ব্যবসার করার সাথে সাথেই একের পর এক লাইসেন্সগুলো আপনাকে করে নিতে হবে।

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে কত বড় জায়গার প্রয়োজন?

ন্যাপথালিন বল তৈরীর ব্যবসা করার জন্য অবশ্যই আপনাকে 10/10 ফুটের একটা ছোট ল্যাবরেটরি তৈরি করতে হবে। এছাড়াও আরও একটা 10/10 ফুটের ঘরের প্রয়োজন যেখানে আপনি প্যাকেজিং এবং স্টোরেজ করে রাখবেন। এছাড়া আপনি যদি বড় আকারের কারখানা তৈরি করে ন্যাপথালিন তৈরির ব্যবসা করেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে 100 বর্গফুটের জায়গার প্রয়োজন পড়বে।

ন্যাপথালিন তৈরির ব্যবসা কোথায় করা যায়? (Where can naphthalene be made?)

আপনি চাইলে ন্যাপথালিন তৈরির ব্যবসা আপনার গ্রামে অথবা শহরের যেকোনো জায়গাতেই করতে পারেন। তবুও আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যেখানে আপনি কোম্পানি তৈরি করছেন তার কাছাকাছি যেন পরিবহন ব্যবস্থা উন্নত থাকে। এছাড়াও ইলেকট্রিসিটি যেন পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকে। এরপর আপনি যদি আপনার গ্রামে তেই ব্যবসা শুরু করেন তাতেও কোন সমস্যার মধ্যে আপনাকে পড়তে হবে না। তবে তৈরি হওয়া প্রোডাক্ট সহজেই যাতে আপনি শহরের নিয়ে যেতে পারেন তার ব্যবস্থা আপনাকে অবশ্যই করতে হবে।

অবশ্যই পড়ুন- ১০টি অল্প পুজিতে নতুন ব্যবসা

কিভাবে ন্যাপথলিন বল তৈরি হয়? (How is naphthalene ball made?)

ন্যাপথালিন বল তৈরীর ব্যবসা করার জন্য অবশ্যই আপনাকে উপযুক্ত ট্রেনিং নিয়ে এই ব্যবসা শুরু করতে হবে। ন্যাপথালিন বল তৈরি করার জন্য ট্রেনিং আপনার এলাকার সরকারি অথবা বেসরকারি কিছু প্রতিষ্ঠান থেকে পেতে পারেন। এছাড়া আপনি যেখান থেকে মেশিন কিনবেন সেখানেও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা থাকে। তবে ন্যাপথালিন বল তৈরি করার জন্য সহজলভ্য উপায় এখানে বলা হলো-

  • প্রথমে ন্যাপথালিন ফ্লেক্স বা জমাটবাঁধা ন্যাপথলিন জেকেটেড পাত্রে রাখুন।
  • 88°c তাপমাত্রা রেখে গরম করতে হবে ন্যাপথলিন কে।
  • এরপর সম্পূর্ণ ন্যাপথলিন গলে গেলে তার সঙ্গে প্যারাফিন মোম এবং কর্পূর যুক্ত করতে হবে।
  • সম্পূর্ণ মিশ্রণটি ভালোভাবে তৈরি হয়ে যাবার পর অটোমেটিক মেশিনের সাহায্যে অ্যালুমিনিয়াম ছাঁচে ফেলতে হবে।
  • অ্যালুমিনিয়াম ডাইসে সমস্ত ন্যাপথালিন পড়ার পর ঠান্ডা হয়ে গেলে অটোমেটিক ভাবেই ন্যাপথালিন বল তৈরি হয়ে যাবে।
  • একটা মেশিন প্রতি ঘন্টায় 7000 ন্যাপথলিন বল তৈরি করতে পারে।

ন্যাপথালিনের প্যাকেজিং কিভাবে করা হয়?

ন্যাপথালিন বল তৈরি হয়ে যাবার পর নির্দিষ্ট ওজন অনুযায়ী পরিমাপ করে ছোট বড় প্লাস্টিকের পরিমাণ মতো ভরতে হবে। প্লাস্টিক গুলিভর্তি করা হয়ে গেলে প্রতিটা প্লাস্টিকের ভেতরে আপনার কোম্পানির নাম এবং লোগো লাগানো স্টিকার যুক্ত করে প্লাস্টিক প্যাকেট গুলিকে ভালো করে সিল করে দিতে হবে। আপনি চাইলে প্রতিটি প্লাস্টিক প্যাকেট আলাদা করে আপনার কোম্পানির নামে ছাপিয়ে নিতে পারেন। এরপর সমস্ত প্যাকেট গুলিকে কাগজের কার্টুন এর মধ্যেও পরিমাণ মতো ভর্তি করে কাগজের কার্টুনগুলো কেও সিল করে দিতে হবে। বাজারে বিক্রি হওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে যাবে সমস্ত ন্যাপথালিন বল গুলি।

ন্যাপথলিন বল কোথায় বিক্রি করা যায়? (Where can naphthalene balls be sold?)

ন্যাপথালিন বল তৈরীর ব্যবসা করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে তৈরি হয়ে যাওয়া প্রোডাক্ট গুলি কে বাজারে বিক্রি করার জন্য ব্যবস্থা করতে হবে। এর জন্য আপনি বিভিন্ন ধরনের পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন। ন্যাপথালিন বল আপনি যেখানে যেখানে বিক্রি করতে পারেন সেটি হল-

  • বাজারের প্রতিটা দোকানে দোকানে বিক্রি করতে পারেন।
  • আপনার এলাকার হোলসেল মার্কেটে বিক্রি করতে পারেন।
  • আপনার এলাকার বিভিন্ন ডিস্ট্রিবিউটারকে বিক্রি করতে পারেন।
  • নিজস্ব ওয়েবসাইট তৈরি করে তার মধ্য দিয়ে বিক্রি করতে পারেন।
  • বিভিন্ন অনলাইন ই-কমার্স ওয়েবসাইট খুলতে একটা করে বিজনেস অ্যাকাউন্ট খুলে তার মধ্য দিয়ে কাস্টমারের কাছে সরাসরি ব্যবসা করতে পারেন। যেমন অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট, ইন্ডিয়ামার্ট ইত্যাদি।
  • বড় বড় অ্যাপার্মেন্ট এ সেলসম্যানের মারফত বিক্রি করতে পারেন।
  • নিজস্ব কোম্পানিতে সেলসম্যানের রেখে তাদের মারফত বিভিন্ন ছোট বড় কম্পানিতে বিক্রি করতে পারেন।
Naphthalene making business
ন্যাপথালিন তৈরীর ব্যবসা

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসায় লাভ কত?

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা পড়তে গেলে যেমন বেশকিছু পুঁজির খরচ হয় তেমন এই ব্যবসাতে লাভের পরিমাণ ও অনেকটাই বেশি পরিমাণে থাকে। 100 গ্রাম ন্যাপথালিন বল আপনি বাজারে বিক্রি করতে পারেন 150 টাকা দামে। অনলাইনে বিক্রি করতে পারেন 180 টাকা দামে। প্রতিদিন ন্যাপথলিন বল তৈরি করে একজন ছোট ব্যবসায়ী লাভ থাকে 2 থেকে 3 হাজার টাকা। অর্থাৎ ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসায় প্রতি মাসে আয় 50 হাজার টাকা থেকে 60 হাজার টাকা। বড় ন্যাপথলিন ব্যবসায়ীরা প্রতি মাসে আয় করেন এক লক্ষ টাকার বেশি।

ন্যাপথলিন বল তৈরীর ব্যবসায় সমস্যার সমাধান

ন্যাপথালিন বল তৈরির ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে বেশ কিছু সমস্যার মধ্যে হয়ত শুরুতে পড়তে হতে পারে। তাই সেই সব সমস্যা গুলোর সমাধান করার জন্য অবশ্যই আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যেসব জিনিস গুলি সেগুলি হল-

  • ব্যবসার শুরুতে দাম কম রেখে অল্প লাভের ন্যাপথালিন বল গুলো বিক্রি করতে হবে।
  • যোগ্য কর্মচারী নিয়োগ করতে হবে।
  • একাধিক সেলসম্যান নিয়োগ করতে হবে।
  • প্রতিটা মার্কেট বুঝে ভালো করে এনালাইসিস করতে হবে।
  • চেষ্টা করতে হবে প্রতিটা মার্কেটের প্রতিটা দোকানে যেন আপনার তৈরি ন্যাপথলিন পৌঁছে যায় সেইটা।
  • বাজারে বিক্রির সাথে সাথে অনলাইনেও সমানভাবে আপনাকে ব্যবসাটা করতে হবে।

জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন

প্রশ্ন: ন্যাপথালিন বল তৈরীর ব্যবসায় বিনিয়োগ কত?

উত্তর: 1 লক্ষ টাকা থেকে 2 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে হয় ন্যাপথালিন বল তৈরীর ব্যবসা করতে গেলে।

প্রশ্ন: ন্যাপথালিন তৈরির ব্যবসা কি গ্রামে করা যায়?

উত্তর: ন্যাপথালিন তৈরির ব্যবসা গ্রাম কিংবা শহর যেকোনো জায়গাতেই করা যায়।

প্রশ্ন: ন্যাপথালিন তৈরির ব্যবসা করতে কত বড় জায়গার লাগে?

উত্তর: 10/10 ফুটের দুখানা রুম লাগবে ন্যাপথলিন তৈরীর ব্যবসা করতে।

প্রশ্ন: ন্যাপথালিন তৈরীর ব্যবসায় লাভ কত?

উত্তর: প্রতিদিন লাভ হতে পারে 1000 টাকা থেকে 3000 টাকার মধ্যে। ন্যাপথালিন বল তৈরীর ব্যবসায় প্রতি মাসে একজন ব্যবসায়ীর লাভ হয় 50 হাজার টাকা থেকে 90 হাজার টাকার মধ্যে।

প্রশ্ন: ন্যাপথালিন তৈরির ব্যবসা করতে কি ল্যাবরটরি প্রয়োজন?

উত্তর: ন্যাপথালিন তৈরির ব্যবসা করার জন্য অবশ্যই ছোট করে একটা ল্যাবরটরি বানাতে হবে। ল্যাবরটরি না বানিয়ে আপনি কারখানার মাধ্যমে করতে পারেন তার জন্য আপনাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে

নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

ছাতা তৈরির ব্যবসা

মোবাইল দোকানের ব্যবসা

Leave a Comment