টিপ তৈরির ব্যবসা করুন 2 হাজার টাকায় | Tip making business right now

বাঙালি মেয়েরা তো বটেই, ভারতের প্রায় সব ধর্মের সব রাজ্যের মেয়েরাই ভীষণ পছন্দ করে টিপ পড়তে। আর এই টিপ তৈরির ব্যবসা মাত্র 2 টাকায় শুরু করে আপনি প্রতিদিন 800 টাকা থেকে 1 হাজার টাকা উপার্জন করতে পারেন। তবে কিভাবে আপনি এই ব্যবসা করে উপার্জন করতে পারবেন তা সম্বন্ধিত যাবতীয় তথ্য নিয়ে আজকের এই পোস্ট। সম্পূর্ণ পোস্ট মনোযোগ সহকারে পড়লে আপনি নিজে উদ্যোগে শুরু করতে পারবেন টিপ তৈরির ব্যবসা।

Table of Contents

কিভাবে টিপ তৈরির ব্যবসা শুরু করা যায়? (How to start a tip making business?)

টিপ তৈরির ব্যবসা আপনি দুই ধরনের পদ্ধতিতে করতে পারেন, এক বাজার থেকে পাইকারি দরে টিপ কিনে নিয়ে এসে তা সুন্দর সুন্দর প্যাকেজিং করে বিক্রি করা। আর নিজে উদ্যোগে মেশিন কিনে টিপ তৈরি করে তা বিক্রি করা। অত্যান্ত লাভজনক হলেও এই ব্যবসাতে competition খুবই কম থাকে। আপনি যদি এই ব্যবসা আপনার এলাকাতে শুরু করেন তাহলে হয়তো আপনি প্রথম ব্যবসায়ী হবেন আপনার এলাকার। টিপ তৈরির ব্যবসা করার জন্য খুবই অল্প পরিমাণ জায়গার প্রয়োজন হয়। তবে মার্কেটিং করার জন্য বেশ কয়েকজন কর্মচারী বা নিজেকে একটু পরিশ্রম করতে হয়। টিপ তৈরির ব্যবসা ভালোভাবে করতে আজকে এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন

অবশ্যই পড়ুন- ব্যবসা এখন 0 পুঁজি বিনিয়োগে

টিপ তৈরির কাঁচামাল কি কি? (What are the raw materials for making tip? )

টিপ তৈরির ব্যবসা করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে জানতে হবে এই টিপ তৈরি করতে কি কি ধরনের কাঁচামাল লাগে। বর্তমানে দুই ধরনের টিপ সবথেকে বেশি পরিমাণে বিক্রি হয়। আর এই টিপগুলি তৈরি করার কাঁচামাল গুলি হল-

  • ভেলভেট পেপার রোল
  • ফেন্সি কালার পেপার
  • আঠা (glue)
  • সেলোফেন পেপার
  • ছোট-বড় ডিজাইনের বিভিন্ন পাথর ও পুথি
Tip making machine
টিপ তৈরির মেশিন

টিপ তৈরির কাঁচামাল কোথায় কিনতে পাওয়া যায়? (Where to buy raw materials for tip making?)

টিপ তৈরির ব্যবসার প্রয়োজনীয় কাঁচামাল গুলি আপনি খুব অল্প দামে পাইকারি রেটে কিনতে হলে অবশ্যই কলকাতার বড় বাজারে যোগাযোগ করতে হবে। ওল্ড চায়না বাজার এবং বড় বাজারের টিপ মার্কেট থেকে সমস্ত ধরনের টিপ তৈরির কাঁচামাল সহজলভ্য দামে কিনে নিয়ে আপনার এলাকাতে আপনি ভালোভাবে ব্যবসা করতে পারেন। বাংলাদেশে যারা থাকেন তারা যদি টিক তৈরির ব্যবসা করতে চান সেক্ষেত্রে চকবাজার অথবা গুলিস্তান মার্কেট থেকে আপনি সব ধরনের কাঁচামাল কম দামে কিনে নিতে পারবেন। এছাড়াও ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট থেকে সকল ধরনের কাঁচামাল খুবই কম দামি কিনতে পাওয়া যায়।

টিপ তৈরির মেশিনের দাম কত? (How much does the tip making machine cost?)

টিপ তৈরির ব্যবসার প্রয়োজনীয় মেশিন বিভিন্ন কোম্পানি নানা রেটে বিক্রি করে তার কোয়ালিটির ওপর ভিত্তি করে। তাই টিপ তৈরির মেশিন কেনার সময় অবশ্যই দেখে কিনবেন। বর্তমানে দুই ধরনের মেশিন খুব প্রচলিত টিপ বানানোর জন্য। বর্তমানে টিপ তৈরির মেশিন গুলির দাম হলো-

  • অটোমেটিক টিপ মেকিং মেশিন– 10 হাজার থেকে 12 হাজার টাকা।
  • হ্যান্ড প্রেস টিপ মেকিং মেশিন– 5 হাজার টাকা থেকে 8 হাজার টাকা।
  • Plotter machine দাম 10 হাজার টাকা।

টিপ তৈরির মেশিন কোথায় কিনতে পাওয়া যায়? (Where to buy tip making machine?) | bindi making machine

টিপ তৈরির ব্যবসা করার জন্য যে টিপ বানানোর মেশিন কিনতে হবে তা আপনি পেয়ে যাবেন যেকোনো বড় শহরের মেশিনারী দোকান থেকে। তবে সব দোকানে না পাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি যেহেতু এই ব্যবসার কম্পিটিশন কম রয়েছে তাই এই মেশিনের চাহিদাও খুবই কম। তবে অসুবিধা হবে না আপনি যদি মেশিনারি দোকানে এই মেশিনের অর্ডার দিয়ে তারপর কেনেন। বড় বাজারের একাধিক মেশিনারি দোকানের বর্তমানে এই টিপ তৈরির মেশিন বিক্রি হচ্ছে আপনাদের বাড়ি যদি কলকাতা অথবা পশ্চিমবঙ্গের কাছাকাছি হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই কলকাতা থেকে এই মেশিন কিনে নিয়ে ব্যবসা করতে পারবেন।

বাংলাদেশের চকবাজারে ও একাধিক মেশিনারি দোকানে এই টিপ তৈরির মেশিন বিক্রি হয়। এইরকম বেশ কিছু যোগাযোগ নাম্বার আমি নিচে দিয়ে দেব আপনাদের প্রয়োজন অনুসারে ফোন করে টিপ তৈরীর মেশিন কিনে টিপ তৈরির ব্যবসা করতে পারেন। এছাড়া আপনি যদি চান তাহলে ইন্ডিয়া মার্ট ওয়েবসাইট থেকে বিভিন্ন দামের নানা কোয়ালিটির টিপ তৈরির মেশিন দেখে কিনতে পারেন। অনলাইনে ইন্ডিয়ামার্ট ওয়েবসাইট ছাড়া আলিবাবা ডট কম ওয়েবসাইট থেকেও মেশিন কেনা যায়।

  • 8383996013
  • 9892440918.
  • CHANCHALA TRADERS PATNA 9386034007

কিভাবে টিপ তৈরি হয়? (How is the tip made?)

টিপ বা বিন্দিয়া তৈরির ব্যবসা করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে জানতে হবে টিপ বানানোর পদ্ধতি সম্পর্কে। বর্তমানে টিপ বানানো হয় দুই ধরনের পদ্ধতিতে। ফলে আপনি যখন এই ব্যবসা করবেন তখন আপনাকে সব ধরনের পদ্ধতি জেনে রাখতে হবে।

  • টিপ মেকিং মেশিনে ভেলভেট পেপার দিয়ে মেশিন চালিয়ে দিলে খুব সহজেই নির্দিষ্ট ডাইসের সাহায্যে বিভিন্ন আকৃতির টিপ কেটে বাইরে বেরিয়ে আসবে।
  • বাইরে বেরিয়ে আসার টিপগুলিকে সংগ্রহ করে একসাথে কেজি দরে প্যাকেট ভর্তি করে পাইকারি দরে বিক্রি করতে পারেন।
  • আবার ছোট ছোট কার্ড তৈরি করে তাতে পাঁচটা দশটা করে টিপ লাগিয়ে বাজারে বিক্রি করতে পারেন।
  • বর্তমান বাজারে যেমন সাধারণ দোকানে টিপ বিক্রি হয় সেই ধরনের প্যাকেজিং করে টিপ বিক্রি করতে পারেন।
  • কালারফুল ফ্যান্সি পেপার প্লোটার মেশিনের সাহায্যে বিভিন্ন ডিজাইন তৈরি করে ফেন্সি টিপ বানানো যায়।
  • এই ফ্যান সিটিপের ওপর ছোট বড় বিভিন্ন সাইজের পাথর ও ডিজাইন তৈরি করে অনেক দামে বাজারে বিক্রি করা যায়।
  • বিভিন্ন ডিজাইনের টিপ গুলি ফেন্সিটিভ হিসেবে পরিচিত আর এটা প্লোটার মেশিনেই তৈরি করা হয়।

আরো পড়ুন- গ্যারেজের ব্যবসা মাত্র ১০ হাজার টাকায়

বিন্দিয়া পাইকারি ব্যবসা কিভাবে করবেন? (How to do Bindi wholesale business?)

বিন্দি বা টিপের পাইকারি ব্যবসা করতে হলে অবশ্যই আপনাকে পাইকারি দামে বিন্দিয়া কিনতে হবে। বর্তমানে কলকাতার বড়বাজারের টিপ মার্কেট থেকে আপনি পাইকারি দরে bindi কিনতে পারেন। এই টিপ মার্কেট থেকে মাত্র 1 টাকা প্রতি প্যাকেট পিপের পাতা কিনে সাধারণ রিটেল মার্কেটে 5 টাকা দরে বিক্রি করতে পারেন। এছাড়াও বড়বাজার থেকে আপনি একসাথে কেজি কেজি দরে টিপের প্যাকেট কিনতে পারেন। এই প্যাকেট থেকে টিপ নিয়ে ছোট ছোট প্যাকেটে ভর্তি করে লোকাল মার্কেটে বিক্রি করতে পারেন। তবে টিপের পাইকারি ব্যবসায় লাভের পরিমাণ প্রতিদিন 800 টাকা করে হতে পারে একজন নতুন ব্যবসায়ীর কাছে। আপনি খুব সহজেই টিপের পাইকারি ব্যবসা করে একজন সফল ব্যবসায়ী হতে পারেন।

  • 111, Biplabi Behari Basu Road, Canning Street, Kolkata – 700001 ,Contaet No- 9831108181
  • Bindi Radika, & manisha, varieties Desgin & stone bindis, hair elips & gemeral order suppliers Mob-9831108181
  • Khan Cosmetie 109/1-a, Canning Street,Kolkata700001 Phone-8420657668
Tip and design bindi
টিপ ও ডিজাইন বিন্দি

বিন্দি মেকিং ব্যবসায় কি কি লাইসেন্স লাগে? (What license is required in bindi making business?)

ছোট আকারের বিন্দি মেকিং ব্যবসা বা টিপ তৈরির ব্যবসা করার জন্য আলাদা করে কোন লাইসেন্স নিতে হয় না। তবে আপনি যদি খুব বড় আকারের এই ব্যবসা করে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে ট্রেড লাইসেন্স জিএসটি নাম্বার সহ আরো কয়েকটি লাইসেন্স নিতে হবে। তাই টিপ তৈরির ব্যবসার প্রয়োজনীয় লাইসেন্স গুলি হল-

  • ট্রেড লাইসেন্স
  • GST নাম্বার
  • উদ্যগ আধার রেজিস্ট্রেশন
  • BSTI লাইসেন্স (বাংলাদেশে প্রযোজ্য)
  • ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার
  • নাগরিকত্বের প্রমাণপত্র

এই সমস্ত ধরনের লাইসেন্স আপনি অনলাইনে আবেদন করে পেতে পারেন। তবে আপনার এলাকাতে যদি আরও অন্য কোন লাইসেন্সের প্রয়োজন হয় এই ব্যবসা করার জন্য তা জানতে নিকটবর্তী পঞ্চায়েত অফিস অথবা বিডিও অফিসে যোগাযোগ করতে পারেন। এই লাইসেন্স গুলি নিতে আপনার এক থেকে দুই হাজার টাকার মত খরচ হবে।

টিপের ব্যাবসায় মার্কেটিং কিভাবে করবেন? (How to do business marketing tips?)

টিপ তৈরির ব্যবসা বা বিন্দি তৈরীর ব্যবসা করতে হলে অবশ্যই আপনাকে মার্কেটিংয়ের ওপর একটু বেশি জোর দিতে হবে। যেহেতু বাজারে আগে থেকেই বিভিন্ন কোম্পানির টিপ বিক্রি হচ্ছে তাই আপনি যখন এই ব্যবসা করবেন তখন মার্কেটিং এর উপর একটু বেশি জোর দেবেন। মার্কেটিং করে আপনার ব্যবসায়ী সফলতা আনার জন্য আপনি যে পদ্ধতিগুলি ব্যবহার করতে পারেন তা হলো –

  • আপনার এলাকার প্রতিটি কসমেটিক্স এর দোকানে টিপ বিক্রি করতে পারেন।
  • বড় বড় পাইকারি বিক্রেতাদের টিপ বিক্রি করা যেতে পারে।
  • পাইকারি বাজারে টিপের চাহিদা থাকাই সেখানে আপনি বিক্রি করতে পারেন।
  • গুগল, ফেসবুক, ইউটিউবে অল্প টাকা খরচ করে বিজ্ঞাপন দিয়ে আপনার কোম্পানির টিপের চাহিদা বাড়িয়ে তুলতে পারেন।
  • বিভিন্ন এলাকাতে একাধিক ডিস্ট্রিবিউটর তৈরি করে তাদের মারফত টিপ এর বিক্রি বাড়াতে পারেন।
  • ছোট ছোট রঙিন পোস্টার তৈরি করে বিউটি পার্লার কসমেটিক্স দোকান এবং স্টেশনারি দোকানের বাইরে লাগিয়ে প্রচার করতে পারেন।
  • এলাকার মধ্যে যে দোকানগুলিতে টিপ বিক্রি হয় প্রতিটা রিটেল দোকানে টিপ বিক্রি করার চেষ্টা করবেন।
  • একসাথে কেজি দরে টিপ এর প্যাকেট তৈরি করে পাইকারি দরে বিক্রি করতে পারেন।

অবশ্যই পড়ুন- ফলের ব্যবসা করুন অল্প পুঁজি বিনিয়োগ

টিপ তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে? (How much does it cost to run a bindi making business?)

আপনি যদি খুব ছোট আকারের টিপ তৈরির ব্যবসা শুরু করেন সে ক্ষেত্রে 15 হাজার টাকা বিনিয়োগ করতে হবে এই ব্যবসায়। এই 15 হাজার টাকার মধ্য প্রয়োজনীয় মেশিন এবং কাঁচামাল সমস্তটাই হয়ে যাবে। আর আপনি যদি পাইকারি বাজার থেকে টিপ কিনে নিয়ে এসে ব্যবসা করেন সেক্ষেত্রে আপনাকে 3 হাজার টাকার মতো বিনিয়োগ করতে হবে। আর বড় আকারে টিপ তৈরীর কোম্পানি শুরু করতে হলে 25 থেকে 30 হাজার টাকা বিনিয়োগ করতে হবে।

তবে একদম ব্যবসার শুরুটা আপনি পাইকারি বাজার থেকে টিপ কিনে এনে তা মার্কেটে বিক্রি করে দেখুন কেমন ভাবে মার্কেটে বিক্রি হচ্ছে ও চাহিদা কেমন রয়েছে। এরপরে আপনি একটি মেশিন কিনে অল্প টাকায় ছোট আকারের ব্যবসা শুরু করতে পারবেন। টিপ তৈরির ব্যবসা করার আগে মার্কেট রিসার্চ করা অত্যান্ত জরুরী তাই আপনিও ব্যবসা শুরুর আগেই মার্কেট রিসার্চ করে তবেই ব্যবসায় নামুন।

টিপ তৈরির ব্যবসায় লাভ কত? (How profitable is the tip making business?)

টিপ তৈরির ব্যবসাতে লাভ হয় অনেক টাকা। কারণ এই ব্যবসায় 1 প্যাকেট টিপ তৈরি করতে খরচ হয় 50 পয়সা। সেই প্যাকেটটা সাধারণ রিটেল দোকানে বিক্রি করা যায় 4-5 টাকায়। আবার রিটেল দোকান সাধারণ পাবলিককে বিক্রি করে8-10 টাকা দামে। তাই টিপ তৈরির ব্যবসা যদি আপনি মাত্র পাঁচ হাজার টাকার কাঁচামালে শুরু করেন তাহলে সেই 5 হাজার টাকার কাঁচামাল থেকে 25 হাজার টাকার প্রফিট করা সম্ভব। অর্থাৎ একজন টিপ তৈরীর ব্যবসায়ী প্রতিমাসে 30 থেকে 50 হাজার টাকা খুব সহজেই ইনকাম করতে পারেন।

তবে ব্যবসার শুরুর দিকে আপনি যদি অল্প মার্কেট নিয়ে কাজ করেন সে ক্ষেত্রেও প্রতিদিন 800 থেকে 1 হাজার টাকার লাভ করতে পারবেন টিপ বিক্রি করে। মনে রাখবেন যত বেশি করে মার্কেটিং করতে পারবেন আর যত দোকান ধরতে পারবেন তত বেশি পরিমাণে লাভ হবে এই ব্যবসাতে।

জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন ও FAQ

টিপ তৈরির ব্যবসা করতে কত টাকা লাগে?

উত্তর: 15-20 হাজার টাকার বিনিয়োগ লাগে টিপ তৈরির ব্যবসা করতে।

বিন্দি তৈরির মেশিনের দাম কত?

উত্তর: 12 হাজার টাকা থেকে 15 হাজার টাকার মধ্য মেশিন পাওয়া যায়।

টিপ তৈরির ব্যবসা করতে কত বড় জায়গা লাগে?

উত্তর: 4/6 ফুটের জায়গা হলেই টিপ তৈরির ব্যবসা করা যায়, অর্থাৎ আপনি আপনার ঘরের মধ্যেই এই ব্যবসা করতে পারবেন।

কত ধরনের টিপ হয়? (How many types of bindi are there?)

উত্তর: 8 থেকে 10 রকমের টিপ সাধারণ বাজারে বিক্রি হয়।
ব্রাইডাল টিপ, মেটাল টিপ, সাধারণ টিপ, ফেন্সি টিপ, চাঁদ বিন্দি, হ্যান্ডমেড বিন্দি ও আরো অনেক ধরনের টিপ।

টিপ ব্যবসা কোথায় করা যায়?

উত্তর: পাইকারি বাজার ও সাধারণ বাজার এলাকায় দোকান নিয়ে টিপ ব্যবসা করা যায়।

বিন্দিয়া তৈরির ব্যবসায় লাভ কত?

উত্তর: প্রতি মাসের আয় 50 হাজার টাকা থেকে 80 হাজার টাকা হতে পারে

নতুন নতুন ব্যবসার আইডিয়া দেখুন-

ঘাসের ব্যবসা করে প্রতিমাসে 1 লক্ষ টাকা আয়

সেলোটেপ তৈরীর ব্যবসায় এখন প্রচুর টাকা

Leave a Comment